শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকল্প বাস্তবায়নে ধীরগতি

|

৪৩টি প্রকল্পের সবগুলোর মেয়াদ ফুরিয়েছে গত বছর অথচ এর মধ্যে মাত্র ৪টির কাজ চলমান। খবর নেই বাকিগুলোর। এতে ক্ষুব্ধ ও হতাশ নেত্রকোণা শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারে অ্যাকাডেমিক কর্মকাণ্ড চলায় ব্যাহত শিক্ষাকার্যক্রম। ভিসির দাবি, করোনার জন্য বিলম্বিত হচ্ছে কাজ।

নেত্রকোণায় শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় উদ্বোধন করা হয়েছে ২০১৮ সালের ৭ নভেম্বর। কথা ছিল, গত ডিসেম্বরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৩টি প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। তবে সেটা সম্ভব হয়নি।

এদিকে অবকাঠামো না থাকায় ক্যাম্পাস সুবিধা পাচ্ছেন না শিক্ষার্থীরা। স্থানীয় টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারে চলছে প্রশাসনিক এবং অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম। এতে ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষাকার্যক্রম। বাড়ছে শিক্ষার্থীদের হতাশা।

৪৩ টি প্রকল্পের মধ্যে এখন পর্যন্ত মাত্র ৪ টির টেন্ডার আহ্বান করা হয়েছে। এর মধ্যে ভূমি উন্নয়নে ২৩৯ কোটি, প্রশাসনিক ভবনের জন্য প্রায় ১০৪ কোটি টাকার টেন্ডার সম্পন্ন হয়েছে। আর প্রায় ১১৫ কোটি টাকার টেন্ডার সম্পন্ন হয়েছে একটি অ্যাকাডেমিক ভবনের জন্য। সেগুলোর কাজই এখন চলছে। বাকিগুলোর কোনো অগ্রগতি নেই।

শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিক উল্লাহ খান জানালেন, কোভিড পরিস্থিতির জন্যই বিলম্বিত হচ্ছে কাজ। তবে প্রকল্পের মেয়াদ বাড়িয়ে দ্রুততম সময়ে তা সমাপ্ত করারও আশ্বাস দিলেন তিনি। হবে বলে আশ্বাস দিলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে শিক্ষার্থী আছে ১৯৮ জন। এছাড়া ১১ জন শিক্ষকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারি মিলিয়ে আছেন আরও ৪২ জন। মোট জমির পরিমাণ ৫শ একর।

/এডব্লিউ


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply