ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষার জন্য কালকিনির ইউএনও-কে অব্যাহতি

|

প্রদ্যুৎ কুমার সরকার, মাদারীপুর

চলমান এইচএসসি পরীক্ষায় সারাদেশে একসেটে পরীক্ষা নেয়া হলেও জেলার কালকিনি উপজেলায় ভিন্ন সেটে পরীক্ষা নেয়ায় ৩ হাজার পরীক্ষার্থীদের মাঝে চরম হতাশা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে। ভুল প্রশ্নে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা গ্রহণে কালকিনি উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তাকে সাময়িক অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে ও তিন কেন্দ্র সচিবকে শোকজ করা হয়েছে।

এছাড়া মাদারীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারহানা তানজিল মুমুকে আগামীতে সকল পরীক্ষার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তাকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বোর্ডে যোগাযোগ করে শিক্ষার্থীদের ভুল প্রশ্নে পরীক্ষার বিষয়টি দেখার জন্য বলা হয়েছে।

সরেজমিনে জানা যায়, সোমবার থেকে সারা দেশে একযোগে বাংলা প্রথম পত্র পরীক্ষার মধ্য দিয়ে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হয়। এ পরীক্ষায় জেলার কালকিনির মোট ৩ হাজার ৮৪জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছেন। মোট ৪ টি কেন্দ্রে ৬টি কলেজের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন। কিন্তু সোমবার সারা দেশে বাংলা ১ম পত্র পরীক্ষা ’খ’ সেটে নেয়া হলেও মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলায় ’খ’ সেটের পরিবর্তে ভুল প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হয়।

উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা প্রমথ রঞ্জন ঘটকের গাফলতির কারণে ’খ’ সেটের প্রশ্নে পরীক্ষা না নিয়ে নেয়া হয় ’ক’ সেটের মাধ্যমে। এতে করে চরম বিপাকে পড়েছেন পরীক্ষার্থীরা। বিষয়টি জানাজানির পর হতাশ হয়ে পড়েছেন পরীক্ষার্থীরা। অভিভাবকরাও চিন্তিত তাদের ছেলেমেয়েদের ভবিষ্যত নিয়ে। অনেক পরীক্ষার্থীদের মাঝেই হতাশায় অন্য পরীক্ষায় বিরুপ প্রভাব পড়ছে।

বিভিন্ন শ্রেনির পেশার মানুষের মাঝে শুরু হয়েছে সমালোচনার ঝড়। তবে প্রশাসনের দাবি বিষয়টি ভুলক্রমে হয়েছে। তবে দায়িত্বে অবহেলার কারণে কালকিনি উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা প্রমথ রঞ্জন ঘটককে সাময়িকভাবে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে। আর তিন কেন্দ্র সচিব জাকিয়া সুলতানা, মমতাজ বেগম ও হাসানুল হক সিরাজীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেছে প্রশাসন। আগামী ৭ দিনের মধ্যে তাদের চার জনকে জবাব দিতে বলা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সন্ধায় মাদারীপুর জেলা প্রশাসক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, কাজে অবহেলা পূর্বক ভুল সেট প্রশ্নে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা গ্রহনের কারণে কালকিনি ইউএনওকে সাময়িকভাবে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে। আর তিন কেন্দ্র সচিবকে শোকজ করা হয়েছে।

 

 

সারা দেশে বাংলা পরীক্ষাটি খ সেটে নেয়া হলেও মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলায় ভুল প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হয়েছে।  আর  এজন্য কালিকিনি উপজেলার

খ সেটের প্রশ্নের পরিবর্তে পরীক্ষা নেয়া হয় ক সেটে। এতে চরম বিপাকে পড়তে হয়েছে পরীক্ষাথীদেরকে। অভিযোগ আছে উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্ত প্রমথ রঞ্জন ঘটকের গাফলতির কারনেই এমন বিপত্তি। বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে উপজেলায় বিভিন্ন শ্রেনীর পেশার মানুষের মাঝে চলছে চরম সমালোচনার ঝড়।

কয়েকজন পরীক্ষার্থী বলেন, “ভুল প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়ার কারনে আমরা খুব দুচিন্তায় পড়েছি। সারা দেশে খ সেটে পরীক্ষা হলো, আমাদের কালকিনিতে শুধু ক সেটে নেয়া হয়েছে। এখন এই ভুলের খেসারত কে দেবে?”

তবে প্রশাসনের দাবি বিষয়টি নিছকই ভুলক্রমে হয়েছে। উপজেলা ভারপ্রাপ্ত ইউএনও প্রমথ রঞ্জন ঘটক বলেন, “আমাকে কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে যে বার্তা দেয়া হয়েছে তা ঠিকমতো না বুঝেই ক সেটের প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। তবে আমি এ বিষয় কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করেছি। তারা আমাদের পরীক্ষার্থীদের খাতা আলাদাভাবে পাঠাতে বলেছেন।”









Leave a reply