স্মিথদের ঘরোয়া ক্রিকেটে সুযোগ দেয়ার দাবি এসিএ’র

|

বল ট্যাম্পারিংয় বিতর্কে স্মিথ-ওয়ার্নারের ১ বছর ও ব্যানক্রফ্টের ৯ মাসের নিষেধাজ্ঞাকে নজির বিহীন শাস্তি বলে উল্লেখ করেছে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন-এসিএ। এমন শাস্তি মেনে নিতে পারছে না তারা। আন্তর্জাতিক না হোক অন্তত ঘরোয়া ক্রিকেটে দ্রুত ফেরার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটির সভাপতি গ্রেগ ডায়ার।

কেপটাউন টেস্টের তৃতীয় দিনের ব্যানক্রফটের হলুদ টেপ লুকানোর ব্যর্থ প্রয়াসের দৃশ্য শুধু অস্ট্রেলিয়া নয় কাঁপিয়ে দিয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটকে। শাস্তিও পেয়েছেন ব্যানক্রফট। বাদ যাননি দলের অধিনায়ক-সহঅধিনায়কও। তারা লঘু পাপে গুরু দণ্ড পেলেন কিনা সেই বিতর্কই এখন পুরো ক্রিকেট অঙ্গনে। ক্রিকেট থেকে ১ বছরের জন্য নির্বাসিত হয়েছেন স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। তরুণ ব্যানক্রফটের কাঁধে ৯ মাসের খড়গ।

এমন শাস্তি মেনে নিতে পারছে না অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের সংগঠন এসিএ। সংগঠনটির প্রেসিডেন্ট গ্রেগ ডায়ার বলেন, বিচার কখনো দ্বিধান্বিতভাবে ছুটতে পারে? এর আগে এমন অপরাধের জন্য শাস্তি হিসেবে দু’টি আন্তর্জাতিক ওয়ানডে নিষিদ্ধ করা হতো। ওরা ওদের ভুল স্বীকার করেছে। তবে, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার দেয়া এই শাস্তিটি একটি নজির সৃষ্টি করেছে সেটিও মানছে এসিএ।

এসিএ’র মতো অজি সমর্থকদের দাবি ২০১৯ বিশ্বকাপ সামনে রেখে আঞ্চলিক ক্রিকেটে তাদের সুযোগ দেওয়া উচিৎ।

গ্রেগ ডায়ারও বললেন, আমরা মনে করি এই নিধিদ্ধ ক্রিকেটারদের খুব দ্রুতই ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরানো উচিত। সামনে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ আর ২০১৯ সালে অ্যাশেজ সিরিজ। এটা মাথায় রেখেই অন্তত ঘরোয়া ক্রিকেটে এই ৩ ক্রিকেটারকে ফেরানো প্রয়োজন।

এসিএ’র এই দাবি কতটুকু মানবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তার ওপর নির্ভর করছে স্মিথ-ওয়ার্নার-ব্যানক্রাফটদের ফেরা। তবে শাস্তির বিপরীতে আপিলের সুযোগ থাকছে এ ৩ ক্রিকেটারদের।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply