মেডিকেলে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষার্থীদের নম্বর কেটে নেয়ায় স্থগিতাদেশ

|

মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে দ্বিতীয়বারের পরীক্ষার্থীদের ৫ নম্বর কেটে নেওয়ার সিদ্ধান্ত চলতি শিক্ষা বছরের জন্য স্থগিত করেছে হাইকোর্ট।

সেইসঙ্গে নম্বর কেটে নেওয়ার সিদ্ধান্ত কেনো আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে আদালত।

স্বাস্থ্যসচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, পরিচালক, বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিলের (বিএমডিসি) চেয়ারম্যান ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

নম্বর কেটে নেওয়ার ওই সিদ্ধান্তকে বেআইনি ঘোষণার নির্দেশনা চেয়ে করা একটি রিট আবেদনের শুনানি করে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের অবকাশকালীন বেঞ্চ মঙ্গলবার এই আদেশ দেয়।

২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষ এমবিবিএস কোর্সে ভর্তির আবেদন আহ্বান করে গত ২১ অগাস্ট পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী এমবিবিএস বা বিডিএস ভর্তি পরীক্ষায় দ্বিতীয়বার অংশগ্রহণকারীদের সর্বমোট নম্বর থেকে ৫ নম্বর কেটে মেধাতালিকা তৈরি করা হবে।

ওই সিদ্ধান্তকে ‘মৌলিক অধিকারের পরিপন্থি’ উল্লেখ করে ২৭ আগস্ট রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ।

 

আদালতে দু’পক্ষের শুনানি শেষে বলেন, ‘অনেক বছর ধরে চলে আসা একটি নিয়ম হঠাৎ বদলে ফেলা যায় না। বদলে ফেলতে হলে তা একটা নির্দিষ্ট সময় আগে জানিয়ে দিতে হবে। এখানে তা করা হয়নি। মাত্র কয়েক মাস আগে একটা নতুন সিদ্ধান্ত দিয়ে দেবেন তা কি করে হয়?’

এরপর আদলত রুল জারি করে পাঁচ নম্বর কেটে নেওয়ার আদেশ স্থগিত করে দেয়।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply