প্রথমবারের মতো মানবদেহে প্রতিস্থাপিত হলো শূকরের হৃদপিণ্ড

|

ছবি: সংগৃহীত।

ইতিহাসে প্রথমবারের মতো মানবদেহে শূকরের হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন করে দৃষ্টান্ত গড়লেন যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডের চিকিৎসকরা। ৫৭ বছর বয়সী মেরিল্যান্ডের এক ব্যক্তির শরীরে সম্প্রতি প্রতিস্থাপন করা হয় শূকরের হৃদপিণ্ড। অস্ত্রপচারের পর বেশ সুস্থই আছেন সেই ব্যক্তি। তবে অস্ত্রপচারের আগে শূকরটির জিনগত কিছু পরিবর্তন করা হয়। খবর সিএনএনএর।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোরের ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ড মেডিকেল স্কুলের বিবৃতি দিয়ে এ তথ্য জানানো হয়। সেখানে জানানো হয়, শূকরের হৃদপিণ্ড যার শরীরে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে, তিনি দীর্ঘদিন ধরে হৃদযন্ত্রের জটিলতায় ভুগছিলেন। গত তিনবছর শয্যাশায়ী ছিলেন তিনি। তার শারীরিক অবস্থা এতোটাই নাজুক ছিল যে মানুষের হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপনের ধকল তিনি সহ্য করতে পারতেন না। তাই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

অপারেশন শেষে সেই ব্যক্তি জানান, এই অস্ত্রপচারে রাজি হওয়া তার কাছে ছিল অন্ধকারে ঢিল ছোড়ার মতো। তবে অস্ত্রপচার সফল হওয়ার পর বর্তমানে তিনি মোটামুটি সুস্থ আছেন বলে জানান। বিছানায় পড়ে থেকে মৃত্যুর জন্য অপেক্ষা করার বদলে এই সিদ্ধান্ত নেয়াই ঠিক ছিল বলে মনে করেন তিনি।

মেরিল্যান্ড মেডিকেল স্কুলের গবেষকরা জানান, এই অস্ত্রপচারের সফলতা মানব ইতিহাসে একটি নতুন অধ্যায় যুক্ত করলো। এর ফলে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য বিভিন্ন সময় মানব অঙ্গের সংকট এবার সমাধান করা যাবে।

এসজেড/


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply