হাতে লেখা পরীক্ষা বন্ধ হচ্ছে ক্যামব্রিজে

|

হাতে লেখা পরীক্ষা পদ্ধতি উঠে যাচ্ছে বিশ্বসেরা ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে। এখন থেকে শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দেবেন ল্যাপটপ আর আইপ্যাড ব্যবহার করে।

মনে হতে পারে প্রযুক্তির অগ্রগতির পথে এক ধাপ এগিয়ে যেতেই এমন যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নিয়েছে কুলীন বিশ্ববিদ্যালয়টি। কিন্তু ব্যাপারটা কিন্তু আসলে একেবারেই অন্যরকম। শিক্ষার্থীদের হাতের লেখা এতোটাই খারাপ, যে তা পড়তে গিয়ে রীতিমতো ভিড়মি খেতে হয় শিক্ষকদের।

উত্তরপত্র মূল্যায়ণের এই সমস্যা এতোই প্রকট হয়ে ওঠে যে শেষমেষ ৮০০ বছরের ইতিহাসের হাতে লেখা লিখিত পরীক্ষা পদ্ধতি থেকে সরে আসছে ক্যামব্রিজ কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের শিক্ষক ড. সারাহ- টেলিগ্রাফকে বলেন ‘২০ বছর আগেও শিক্ষার্থীরা দিনে ঘণ্টার পর ঘণ্টা হাতে লিখতো কিন্তু এখনকার ইন্টারনেট প্রজন্ম একমাত্র পরীক্ষার খাতা ছাড়া আর কোথাও হাতে লেখে না। এতে করে শিক্ষার্থীদের হাতের লেখা দিন দিন খারাপ হয়ে যাচ্ছে। শিক্ষকের জন্যও কঠিন হয়ে পড়ছে পরীক্ষার খাতা দেখা’।

অবস্থাটা এমন দাড়িয়েছিলো যে, উত্তরপত্রের লেখা বুঝতে না পেরে শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ডেকে উচ্চস্বরে তা পাঠ করানো হচ্ছে। বর্তমানে শিক্ষার্থীরা ক্রমাগত ল্যাপটপ নির্ভর হয়ে পড়ছে, এমনকি লেকচারের নোটও আইপ্যাডে নিয়ে থাকে। আর এরকম অবস্থা হতে থাকলে হাতে লেখার বিষয়টি কিছুদিনের মধ্যে ‘হারানো শিল্পে’ পরিণত হবে। সেই দিনের প্রস্তুতি নিতেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ল্যাপটপে পরীক্ষা নিয়ে ‘ডিজিটাল শিক্ষা কৌশল’ প্রনয়ণের কথা ভাবছে।

টিবিজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply