গানের কারণে বিয়ের আসরেই স্ত্রীকে তালাক

|

প্রতীকী ছবি।

আজকাল তুচ্ছ কারণে বিয়ে ভেঙে যাওয়ার ঘটনা ঘটে। তুচ্ছ কারণে বিয়ের আসরেই স্ত্রীকে তালাক দেয়ার ঘটনা বিরল। এক যুবক বিয়ের আসরে ‘বিশেষ’ একটি গানের জন্য স্ত্রীকে তালাক দিয়েছে।

যুদ্ধবিধ্বস্ত ইরাকের বাগদাদে এই ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে গালফ নিউজ এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিয়ের আসরে একটি সিরিয়ান একটি গানের কারণেই নববধূকে তালাক দেয় ওই যুবক।

সিরিয়ার গায়ক লামিস কানের গাওয়া ‘মেসায়তারা’ শিরোনামের গানটিই বিয়ের আসরে ওই দম্পতির বিচ্ছেদের অন্যতম কারণ বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। সিরিয়ান ওই গানটির বাংলা অর্থ করলে দাঁড়ায় ‘আমি তোমাকে নিয়ন্ত্রণ করব’।

তবে ওই গানটি কিন্তু নববধূ গাইছিল না। ওই গানের তালে তালে নাচছিল সে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিয়ের আসরে ‘মেসায়তারা’ গানের তালে তালে নাচছিল ওই কনে। বর আর তার পরিবার বিশেষ ওই গানের সঙ্গে নাচকে উসকানি হিসেবেই দেখছিলেন। তাই বর প্রথমে এ নিয়ে কনের সঙ্গে তর্ক শুরু করে। এক পর্যায়ে বিয়ের আসরেই কনেকে তালাক দেয়।
মধ্যপ্রাচ্যে অবশ্য এই বিশেষ গানটির কারণে নববিবাহিতদের বিচ্ছেদের ঘটনা বিরল নয়। গত বছর জর্ডানের এক যুবক বিয়ের আসরে এই গান বাজানোর জন্য নববধূকে তালাক দিয়েছিল।

সিরিয়ান ওই গানটির বাংলা অর্থ কিছুটা এমন:

আমি তোমাকে নিয়ন্ত্রণ করবো; আমার কঠোর নির্দেশে তোমাকে পালন করতে হবে,
যদি তুমি রাস্তায় অন্য মেয়েদের দিকে তাকাও আমি তোমাকে পাগল করে দেব
হ্যাঁ, আমি তোমাকে নিয়ন্ত্রণ করব!
তুমি আমার জান,
যতদিন তুমি আমার সঙ্গে থাকবে, ততদিন তুমি আমার নির্দেশে চলবে।
আমি অহংকারী, আমি অহংকারী।
সূত্র: গালফ নিউজ।
আরও পড়ুন-কাবুল বিমানবন্দরে হারানো সেই শিশু পাঁচ মাস পর ফিরলো স্বজনদের কোলে

এনবি/


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply