শিশুর জন্য করোনা টিকার চেয়েও বড় অস্ত্র মায়ের দুধ: গবেষণা

|

শিশুর কাছে মায়ের দুধের বিকল্প হয় না, তা প্রমাণ করলো করোনাভাইরাস! ছবি: সংগৃহীত

টিকার চেয়েও বড় অস্ত্র হতে পারে মায়ের দুধ! শিশুর কাছে মায়ের দুধের বিকল্প হয় না, তা প্রমাণ করলো করোনাভাইরাসও!

গবেষণা বলছে, করোনায় আক্রান্ত মায়ের দুধেই তৈরি হচ্ছে নবজাতকের জন্য করোনা প্রতিরোধক। মায়ের দুধ জন্মের পর পরই শিশুর শরীরে প্রয়োজনীয় অ্যান্টিবডি দিয়ে দিয়ে দেয় করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য। ফলে করোনার বিরুদ্ধে লড়ার জন্য শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি করে নিতে শিশুর আর টিকার প্রয়োজন হয় না।

আমেরিকার ছয়টি বিশ্ববিদ্যালয় এবং একটি হাসপাতালের যৌথ গবেষণা পরিচালনা করেছে। নজরকাড়া গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান গবেষণা পত্রিকা ‘ফ্রন্টিয়ার্স ইন ইমিউনোলজি’তে। গত ২৩ ডিসেম্বর।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, মহামারি শুরু হওয়ার পর আমেরিকার ‘সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)’ যে সদ্য প্রসূতিদের স্তন্যপান করানো অব্যাহত রাখার সুপারিশ করেছিল, এই গবেষণার ফল সেই সুপারিশকে শক্তপোক্ত করলো।

অন্যতম মূল গবেষক আইড্যাহো বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মিশেল কে শেলি ম্যাকগুয়েরি বলেছেন, আমরা দেখেছি, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার দুই মাস পরেও মায়ের দুধ শিশুকে দেয়ার জন্য অ্যান্টিবডি থাকছে পর্যাপ্ত পরিমাণে। আর সেই অ্যান্টিবডিগুলো ডেল্টা, ওমিক্রনসহ করোনাভাইরাসের প্রায় সবকয়টি রূপকেই নবজাতকের শরীরে রুখে দিতে পারছে।

দেখা গেছে, কোনো কোনো মায়ের ক্ষেত্রে সংক্রমণের এক সপ্তাহের মধ্যেই শিশুকে দেয়ার জন্য ওই অ্যান্টিবডিগুলি তৈরি হয়ে যাচ্ছে ওই মায়ের দুধে।

গবেষকরা দেখেছেন, স্তন্যদুগ্ধে মূলত তৈরি হচ্ছে ইমিউনোগ্লোবিন ‘এ’ শ্রেণির অ্যান্টিবডি। যে ৬০ জন সদ্য প্রসূতির দুগ্ধের নমুনা পরীক্ষা করেছেন গবেষকরা তাদের তিন-চতুর্থাংশের মধ্যেই শিশুর জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় এই ইমিউনোগ্লোবিন ‘এ’ শ্রেণির অ্যান্টিবডি পর্যাপ্ত পরিমাণে পাওয়া গেছে।

সূত্র: ফ্রন্টিয়ার্স ইন ইমিউনোলজি।

আরও পড়ুন- করোনা আক্রান্ত ছেলেকে গাড়ির ব্যাকডালায় রাখলেন মা

এনবি/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply