জীবিতকে মৃত দেখিয়ে বয়স্ক ভাতার কার্ড পরিবর্তন

|

কামাল হোসাইন, নেত্রকোণা

নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলায় বয়স্ক ভাতা উপকার ভোগী মমিন হোসেন নামে জীবিত এক ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়ে একই গ্রামের সিদ্দীকুর রহমানকে বয়স্ক ভাতার কার্ড প্রদান করা হয়েছে। আর এ ঘটনায় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য উষা আক্তারের বিরুদ্ধে নেত্রকোনা জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা করেছেন উপকারভোগী মমিন হোসেন। ঘটনাটি ঘটেছে কেন্দুয়া উপজেলার গড়াডোবা ইউনিয়নের বৃ-চিকনী গ্রামে।

জানা গেছে, কেন্দুয়া উপজেলার বৃ-চিকনী গ্রামের ৮৩ বছরের বৃদ্ধ মমিন হোসেন ১২ বছর পূর্ব থেকে বয়স্ক ভাতার কার্ডের মাধ্যমে ভাতা পেয়ে আসছেন। গত ২১ মার্চ ভাতা উত্তোলন করতে গিয়ে মমিন হোসেন জানতে পারেন, তাকে মৃত দেখিয়ে সিদ্দীকুর রহমান নামে একই গ্রামের আরেক ব্যক্তিকে তার কার্ড প্রদান করেছেন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও স্থানীয় মহিলা ইউপি সদস্য।

মমিন হোসেন জানান, আমি জীবিত মানুষটারে তারা কিভাবে মৃত বানাইলো বুঝতে পারতাছি না।

এ ব্যাপারে কেন্দুয়ার ইউপি সচিব সৈয়দ আল মামুন জানান, এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য রোকন উদ্দিন ও উষা আক্তার বলতে পারবেন।

সংরক্ষিত আসনের অভিযুক্ত গড়াডোবা ইউনিয়নের মহিলা ইউপি সদস্য উষা আক্তার জানান, এ ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না।

বিষয়টি নিয়ে গড়াডোবা ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান বাবলুর মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ ভুলটি কিভাবে হয়েছে, তা আমি নিজেও জানি না। তবে কার্ড সংশোধনের কাজ চলছে।









Leave a reply