পশ্চিমা স্বার্থরক্ষার্থেই ওয়াহাবি মতবাদ প্রচার: সৌদি যুবরাজ

|

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে নব্বুইয়ের দশক অবধি যুক্তরাষ্ট্র ও সোভিয়েত ইউনিয়নের স্নায়ু যুদ্ধে পুরো বিশ্বই দুই শিবিরে ভাগ হয়ে গিয়েছিল।

সেই সময়ে সোভিয়েত রাশিয়াকে ঠেকাতে অনেক কৌশল নেয় পশ্চিমারা। যার একটি ছিলো ওয়াহাবি মতাদর্শের প্রচার। পশ্চিমা বিশ্ব বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধেই সেই সময় নিজস্ব অর্থায়নে অর্থায়নে ওয়াহাবি মতবাদ প্রচার করেছিল সৌদি আরব।

মার্কিন গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। যুক্তরাষ্ট্র সফরের শেষ দিন দেয়া সাক্ষাৎকারে যুবরাজ বলেন, “স্নায়ু যুদ্ধকালীন সময়ে মুসলিম দেশগুলো সোভিয়েত প্রভাব বিস্তার ঠেকাতে মসজিদ ও মাদ্রাসায় বিনিয়োগে সৌদি আরবকে অনুরোধ জানিয়েছিল পশ্চিমা মিত্ররা।”

সৌদি সিংহাসনের উত্তরাধিকারী বলেন, “ ওয়াহাবি মতাদর্শকে শক্তভাবে আকড়ে ধরার ফলে যা হারিয়েছি, তা আমাদের ফিরিয়ে আনতে হবে।” তিনি আরও বলেন, “সরকার নয়, বর্তমানে বেশির ভাগ অর্থায়ন করছে সৌদি ভিত্তিক ফাউন্ডেশনগুলো।”

হোয়াইট হাউজের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ও ট্রাম্পের জামাতা জ্যারেড কুশনার ‘তার পকেটে থাকে’-মার্কিন মিডিয়ার এ দাবিকে অস্বীকার করেছেন বিন সালমান।

প্রাথমিকভাবে এই সাক্ষাৎকারটি প্রকাশ অযোগ্য শর্তে দেওয়া হলেও পরে সৌদি দূতাবাস ওয়াশিংটন পোস্টকে এর অংশ বিশেষ প্রকাশের অনুমতি দেয়।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply