প্রেমের টানে ফিলিপাইনের তরুণী কুড়িগ্রামে

|

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

প্রেম মানে না জাত। প্রেম মানে না দেশ, বিদেশ। তেমনি প্রেমের টানে সিঙ্গাপুর থেকে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ছুটে এসেছেন এক ফিলিপাইন তরুণী।

গত ২৬ মার্চ কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা, তরুণীর প্রেমিক রুবেল আহমেদের বাড়িতে আসেন ইয়াসমিন নামের তরুণী।

বুধবার বিকেলে রুবেলের বাড়িতে গিয়ে ঐ তরুণীকে দেখা গেছে। বিদেশি এই তরুণীকে দেখার জন্য এলাকাবাসী রুবেলের বাড়িতে ভিড় করে।

রুবেল আহমেদ জানান, সিঙ্গাপুর একটি গ্লাস কোম্পানিতে কর্মরত থাকার সময় ফিলিপাইনের তরুণী ইয়াসমিনের সাথে পরিচয় হয়। সেই পরিচয় থেকে তাদের মাঝে প্রেমের সূত্রপাত। রুবেল জানায়, তিনি দশ বছর ধরে সিঙ্গাপুর রয়েছেন। গত পাঁচ বছর ধরে তাদের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক।

এদিকে রুবেল ছুটিতে বাংলাদেশে আসায় দীর্ঘ পাঁচ মাসের মতো তাদের দেখা সাক্ষাত হচ্ছিলো না তাই প্রেমের টানে ইয়াসমিন বাংলাদেশে চলে আসে।

রুবেল জানায়, ইয়াসমিন আমার বাসায় আসার পর পরিবারে সদস্যরা শুনে আমাদের সম্পর্ক মেনে নেয়। এরপর আমরা ২৫ মার্চ আদালতের মাধ্যেমে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছি। আমরা বাকি জীবনটা একসাথে থাকতে চাই।

রুবেলের বাবা বেলাল হোসেন জানান, ছেলের ভালো আমার ভালো। তারা যেহেতু একজন আরেকজনকে পছন্দ করেছে। তাদের সুখের কথা চিন্তা করে বিয়ে দিয়েছি। বাড়িতে অনুষ্ঠানের মাধ্যেমে এলাকাবাসী ও আত্মায় স্বজনদের খাওয়ানো হয়েছে। এখন ছেলের বিয়ের আনন্দ বইছে।

এ ব্যাপারে কাশিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান গোলজার হোসেন ও ফুলবাড়ী থানার ওসি খন্দকার ফুয়াদ রুহানী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।









Leave a reply