মিয়ানমারের নতুন প্রেসিডেন্ট উ উইন মিন্ত

|

(FILES) In this file photo taken on January 29, 2016, Win Myint, speaker of the lower house, attends the last day of parliament's regular session in Naypyidaw. A close ally of Myanmar's de-facto leader Aung San Suu Kyi took a step closer to becoming the country's new president after the lower house overwhelmingly voted for Win Myint as its candidate on March 23, 2018. / AFP PHOTO / Ye Aung THU

মিয়ানমারের পার্লামেন্ট বুধবার দেশটির স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চির গোড়া সমর্থক উ উইন মিন্তকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত করেছে।

এতে করে সর্বোচ্চপর্যায়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের নিয়ন্ত্রণ সু চির হাতেই থাকছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

গত সপ্তাহে বিশ্রাম নেয়ার কথা উল্লেখ করে তিন চিয়াও পদত্যাগ করলে ৬৬ বছর বয়সী উ উইন মিন্তই পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন বলে আভাস পাওয়া গিয়েছিল।

সু চির স্বামী ও সন্তান বিদেশি নাগরিক হওয়ায় সাংবিধানিকভাবে তিনি মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট হতে পারবেন না। ২০১৫ সালের নির্বাচনে তার দল ব্যাপক বিজয় অর্জন করার পর থেকে তিনি স্টেট কাউন্সিলর হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

সাংবিধানিকভাবে তার এই পদের কোনো ভূমিকা না থাকলেও তিনি প্রেসিডেন্টের ওপরে থেকেই দায়িত্ব পালন করে যাবেন বলে জানিয়েছেন।

এ জন্যই সু চির একজন অনুগত ব্যক্তিকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দরকার ছিল। সেনাবাহিনীর সঙ্গে ক্ষমতার দ্বন্দ্বে যাতে তিনি তাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন।

উ উইন মিন্ত গত সপ্তাহে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের স্পিকারের পদ থেকে সরে দাঁড়ান। বুধবার পার্লামেন্টে দুই-তৃতীয়াংশ ভোটে তিনি প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হন।

বিশ্লেষক ওয়েন মেইন থেইন বলেন, মিয়ানমারের গণতন্ত্রায়ন থেকে আমরা বেশি কিছুই আশা করতে পারি না।

রাজনৈতিক বিশ্লেষক ইউন কেই বলেন, উ উইন মিন্তের ক্যারিয়ারের উন্নতি হলেও সু চির নির্দেশনার বাইরে তিনি কিছু করতে পারবেন না।









Leave a reply