স্পেনের কাছে ৬-১ গোলে বিধ্বস্ত আর্জেন্টিনা

|

স্পেনের কাছে ৬-১ গোলে বড় হারের লজ্জায় ডুবেছে আর্জেন্টিনা। একই দিনে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল ১-০ গোলে হারিয়েছে ডিফেন্ডিং বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানিকে।

অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের মাঠ ওয়ানডা মেট্রোপলিটনে স্বাগতিক স্পেনের বিপক্ষে মাঠে নামে আর্জেন্টিনা। মেসিবিহীন আর্জেন্টাইনকে শুরু থেকেই চেপে ধরে স্পেন। ১২ মিনিটে লারোজা ফিউরিদের প্রথম লিড এনে দেন ডিয়াগো কস্টা। ২৭ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন ইসকো। ৩৯ মিনিটে আর্জেন্টিনার হয়ে ডিফেন্ডার ওটামেন্ডি এক গোল শোধ দিলে ২-১ স্কোর লাইনে শেষ হয় প্রথমার্ধ।

দ্বিতীয়ার্ধে আরও চার গোল দেয় স্পেন। ৫২ ও ৭৪ মিনিটে দুই গোল করে হ্যাটট্রিক পুর্ন করেন রিয়াল মাদ্রিদ তারকা ইসকো। মাঝে ৫৫ মিনিটে থিয়াগো আলকানত্রা আর ৭৩ মিনিটে বদলি স্ট্রাইকার আসফাস একটি করে গোল করলে ৬-১ গোলে বড় হারের লজ্জায় পায় সাম্পাওলির আর্জেন্টিনা।

ম্যাচ শেষে আর্জেন্টাইন কোচ হোর্হে সাম্পাওলি বলেন, “মেসির পায়ে ব্যথা আছে তাই এই ম্যাচে সে খেলেনি। তবে আমরা প্রথমার্ধে পরিকল্পনা অনুযায়ি খেলেছি। কিন্তু মূলত শেষ ৪০ মিনিটের খারাপ পারফরম্যান্সের এই বড় হার।”

আর্জেন্টাইনদের মতই অধিনায়ককে ছাড়াই বার্লিনে স্বাগতিক জার্মানির বিপক্ষে মাঠে নামে ব্রাজিল। ম্যাচের প্রথম ৩০ মিনিট আধিপত্য ছিল জার্মানদের। তবে এরপর নিয়ন্ত্রন নিয়ে নেয় নেইমারবিহীন ব্রাজিল। প্রথম দফায় সুযোগ নষ্ট করলেও ৩৭ মিনিটে সেলেসাওদের এগিয়ে দেন গ্যাব্রিয়েল হেসুস। ম্যাচের বাকি সময়ও জার্মানির ডেরায় একাধিক আক্রমন চালায় তিতে শীষ্যরা। তবে জার্মান রক্ষণ দুর্গের আর ভেত করতে না পারায় ১-০ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাজিল।

বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হারিয়েও অবশ্য সন্তুষ্ট নন ব্রাজিলের কোচ তিতে। তিনি বলেন, “সত্যি কথা বলতে আমি শতভাগ সন্তুষ্ট নই। আমরা কিছু মিস পাস করেছি, কয়েকবার পরিকল্পনা অনুযায়ি খেলেতে পারিনি। তবে মাঝ মাঠ ও রক্ষনে দারুন সমন্নয় ছিল, সেটাই জয় এনে দিয়েছে।”

এদিকে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ইংল্যান্ড-ইতালি ম্যাচে শুরু থেকেই ছিল আক্রমন পাল্টা আক্রমনের জমাট লড়াই। তবে ২৬ মিনিটে দ্রুততম ফ্রিকিকের ফায়দা নিয়ে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে লিড এনে দেন জিমি ভার্ডি। ৮৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে লেরেঞ্জো ইনসেনিয়া গোল করলে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইতালি।









Leave a reply