মুরাদ জামালপুরে প্রবেশ করলে প্রতিহত করার ঘোষণা বিএনপির

|

ফাইল ছবি।

সদ্য পদত্যাগকারী তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে জামালপুর জেলায় অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা। বিএনপি নেতারা বলেন, ডা. মুরাদ জামালপুরে প্রবেশ করলে তাকে জনগণ ও বিএনপির নেতাকর্মীরা মিলে প্রতিহত করবে।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় জামালপুর শহরের স্টেশনবাজার রোডে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে এ ঘোষণা দেয়া হয়। এসময় দলটির নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এ সময় ডা. মুরাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হবে বলেও জানান বিএনপি নেতারা।

জামালপুর জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট ফজলুল হকের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন— জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি লিয়াকত আলী, যুগ্ম সম্পাদক খন্দকার আহসানুজ্জামান রুমেল, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম খান সজিব, শহর বিএনপির সদস্য সচিব শাহ আব্দুল্লাহ আল মাসুদ প্রমুখ।

আরও পড়ুন: ছাত্রদল নেতা থেকে আওয়ামী লীগের প্রতিমন্ত্রী: ‘দুঃসময়ে পল্টি দেন ডা. মুরাদ’

সম্প্রতি বিএনপি নেতা তারেক রহমান ও তার কন্যা জাইমা রাহমানকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন সদ্য সাবেক তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। এর প্রেক্ষিতে তার পদত্যাগ দাবি করে বিএনপি ও নারী অধিকারকর্মীরা। একই সাথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের নিয়েও তার আপত্তিকর মন্তব্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। এই বিতর্কের মাঝেই চিত্রনায়ক ইমন ও চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির সাথে তার ফোনালাপ ফাঁস হয়। সেখানে তিনি মাহিকে ধর্ষণের হুমকি দেন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। চিত্রনায়ক ইমন তার ফোন থেকে মাহিকে প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলিয়ে দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

এই পরিস্থিতিতে ডা. মুরাদকে মন্ত্রিত্বের পদ থেকে পদত্যাগের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। মঙ্গলবার তিনি মন্ত্রণালয়ে পদত্যাগপত্র পাঠান। পরবর্তীতে একই দিন রাতেই তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply