এই চরিত্র নিয়ে মুরাদের এমপি পদে থাকারও যোগ্যতা নেই: ব্যারিস্টার সুমন

|

শুধু মন্ত্রিত্ব নয়, সংসদ সদস্য পদ থেকেও তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। সোমবার (৬ ডিসেম্বর) রাতে ব্যারিস্টার সুমন ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় এ কথা বলেন।

ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, খবর পেলাম একটু আগে তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই। এই সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য। এর মাধ্যমে প্রমাণ হলো, পাপ বাপকেও ছাড়ে না।

সুমন বলেন, তিনি (ডা. মুরাদ হাসান) একজন সম্মানিত লোকের সন্তান। আমরা তার বাবাকে শ্রদ্ধা করি। বাবার ইজ্জতের দিকে তাকিয়ে হলেও পদত্যাগ করুক।

মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করার চেয়ে তার ভাইরাল হওয়া ভিডিওগুলো অপসারণ করা জরুরি বলে মন্তব্য করেন সুমন। অপসারণ না করলে অল্প বয়সের ছেলেমেয়েরা এই ধরনের গালাগালি এবং অশ্লীল কথাবার্তা শুনে মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়বে বলে দাবি করেছেন। তিনি আরও বলেন, তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান কয়েকদিন ধরে টানা নারীদেরকে নিয়ে অশ্লীল কথা বলে যাচ্ছিলেন। এমনকি তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নিয়েও মন্তব্য করেছেন। উনার ভাইরাল হওয়া ভিডিও একটিও সত্য হলে তার কোনো পদে থাকার অধিকার নেই।

তিনি বলেন, শুধু মন্ত্রিত্ব থেকে পদত্যাগ করলেই হবে না। উনি জামালপুরের যেখান থেকে এমপি হয়েছেন, এই চরিত্র নিয়ে তার এমপি পদে থাকার নূন্যতম যোগ্যতা নেই। দ্রুত তার এমপি পদ থেকে পদত্যাগ করা উচিত।

প্রসঙ্গত, তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে সমালোচিত হচ্ছিলেন। এরমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ডা. মুরাদ হাসানের সঙ্গে ঢালিউডের চিত্রনায়ক ইমন ও নায়িকা মাহিয়া মাহির মধ্যকার কথোপকথনের অডিও ক্লিপ ভাইরাল হওয়ার পর দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। আর এসব বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য মঙ্গলবারের মধ্যে ডা. মুরাদ হাসানকে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply