নিম্নমানের যাত্রীসেবা নিয়ে আবার চালু বেনাপোল এক্সপ্রেস

|

আবারও চালু হলো বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেন। তবে সমালোচনা তৈরি হয়েছে ট্রেনে নতুনের জায়গায় পুরাতন বগি সংযোজন আর যাত্রীসেবার মান নিয়ে। প্রতিবাদ জানিয়ে এরইমধ্যে মানববন্ধনও করেছে বেনাপোলবাসী। যদিও দ্রুতই আগের বগি ফেরত পাওয়ার আশ্বাস দিয়েছে রেলওয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ।

করোনায় দেড় বছর বন্ধ থাকার পর পুনরায় এক্সপ্রেস চালু হওয়ায় যাত্রীদের ছিল উচ্ছ্বাস। কিন্তু সব উচ্ছ্বাস মুহূর্তেই ধুলোয় মিশে যায় ট্রেন স্টেশনে পৌঁছালে। যাত্রীরা দেখতে পান, নতুন যে বগিগুলো দেয়া হয়েছিল শুরুতে, তার জায়গায় ভাঙাচোরা, শ্রীহীন কোচ।

সীমিত পরিসরে শুরুর পর প্রতিদিন বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতে যাতায়াত করছে প্রায় ৩ হাজার যাত্রী। যার ৬০ শতাংশই যান চিকিৎসার জন্য। বাকিরা ব্যবসায়ী কিংবা শিক্ষার্থী। তাদের অনেকেই বেনাপোল এক্সপ্রেসে ভ্রমণ করতে চান। কিন্তু বগির হতশ্রী চেহারা দেখে তারা মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন।

বেনাপোল রেলওয়ের স্টেশন মাস্টার মো. সাইদুজ্জামান জানান, বগি নিয়ে যাত্রীদের ক্ষোভের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করেছেন। ঊর্ধ্বতনরা দ্রুতই আগের বগিগুলো সংযুক্ত করার আশ্বাস দিয়েছেন বলেও জানালেন তিনি।

আরও পড়ুন : উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিয়ের আসরে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ১

দুপুর পৌনে ১ টায় বেনাপোল থেকে ঢাকায় উদ্যেশে ছাড়ে ট্রেনটি। আর রাত সাড়ে ১০ টায় ছাড়ে কমলাপুর থেকে। বেনাপোল এক্সপ্রেসের সাপ্তাহিক বন্ধের দিন বুধবার।

/এডব্লিউ


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply