বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিএসইসির সমন্বয়হীনতায় পুঁজিবাজারে অস্থিরতা

|

গতিশীল হলেও স্থিতিশীলতা ফেরেনি পুঁজিবাজারে। বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিএসইসির সমন্বয়হীনতায় বাজার স্বাভাবিক হতে পারছে না বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। এই দুই সংস্থার মত-পার্থক্যের প্রভাব পড়ছে লেনদেনের ওপর। যার খেসারত দিতে হচ্ছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের। এছাড়া সম্প্রতি বিএসইসি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈঠক নিয়ে একটি নিয়ন্ত্রক সংস্থা যে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে তা শিষ্টাচার বহির্ভূত বলেও মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

গত সপ্তাহের শেষদিকে পুঁজিবাজার কিছুটা ঘুরে দাঁড়ালেও বেশ কিছুদিন ধরেই ঘুরপাক খায় দরপতনের বৃত্তে। সূচকের সাথে কমে লেনদেনের পরিমাণ ও বাজার মূলধন। এতে বিপাকে পড়েন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। পুঁজি হারিয়েছেন অনেকে। তারা বলছেন, নিয়ন্ত্রক সংস্থার টানাটানির কারণে অস্থিরতা থেকে বেরিয়ে আসতে পারছে না শেয়ারবাজার।

টানা দরপতন চলতে থাকায় গত সপ্তাহে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে বৈঠকে বসে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন। আলোচনা হয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নীতিমালা নিয়ে। এ নিয়ে কর্মকর্তারা কথাও বলেন গণমাধ্যমে। যদিও পরের দিনই আলোচনার বিষয়বস্তু ও সিদ্ধান্ত নিয়ে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। যেখানে দুই সংস্থার টানাপোড়েনের বিষয়টি সামনে চলে আসে। আর এর প্রভাব পড়ে বাজারে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মিজানুর রহমান বলছেন, পুঁজিবাজার অত্যন্ত স্পর্শকাতর। যে কোনো সিদ্ধান্ত বা বক্তব্যই বাজারের ওপর প্রভাব ফেলে। সম্প্রতি দুই সংস্থার আলোচনা নিয়ে যে বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়েছে তা শিষ্টাচার বহির্ভূত বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আরও পড়ুন : উদ্যোক্তারা ঘুরে দাঁড়ালেও বাড়েনি ব্যাংক ঋণ আদায়

কোনো বিষয়ে মত পার্থক্য দেখা দিলে তা আলোচনা মাধ্যমে সমাধানের উদ্যোগ নেওয়ার পরামর্শ বিশ্লেষকদের।

/এডব্লিউ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply