ছাত্রলীগের কোন্দলে হল বন্ধ, দুর্ভোগের দায় কেন নেবেন শিক্ষার্থীরা?

|

ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি অবস্থানের কারণে ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজের হল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ।

ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি অবস্থানের কারণে ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজের হল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। তবে ছাত্রলীগের দলীয় কোন্দলের দায়ে হল বন্ধের দুর্ভোগ মেনে নিতে পারছেন না সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তারা প্রশ্ন তুলছেন, কেন একটি নির্দিষ্ট পক্ষের কোন্দেলের দায় বহন করত হবে সাধারণ শিক্ষার্থীদের? হল বন্ধ করায় নিয়মিত পাঠ কার্যক্রম ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বলেও জানান তারা। তাই দ্রুত হল খুলে দেয়ার দাবি তাদের।

আনন্দমোহন কলেজ শাখাকে জেলা ছাত্রলীগের ইউনিট ঘোষণা করার ঘোষণাকে কেন্দ্র করেই কলেজজুড়ে এই উত্তেজনা।

গত ৩ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ময়মনসিংহ শহরের আনন্দমোহন কলেজ শাখা ছাত্রলীগ ইউনিটটি ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের অন্তর্গত ইউনিট হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এ ঘটনায় মুখোমুখি অবস্থানে কলেজ ছাত্রলীগের দুটি পক্ষ।

আরও পড়ুন : আনন্দমোহন কলেজের হল বন্ধের নির্দেশ

এদিকে উত্তেজনা দেখে গতকাল অনির্দিষ্টকালের জন্য হল বন্ধ ঘোষণা করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

কলেজ কর্তৃপক্ষ বলছে, অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে হল বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অন্যিদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ক্যাম্পাসে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোতয়ালী মডেল থানার পরিদর্শক ওয়াজেদ আলী।

/এডব্লিউ


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply