অনুপ্রবেশকারী ভেবে গ্রামবাসীদেরই গুলি করে হত্যা করলো ভারতের নিরাপত্তা বাহিনী

|

ছবি: সংগৃহীত।

ভারতের নাগাল্যন্ডের মন জেলায় মিয়ানমারের সীমান্তবর্তী গ্রাম ওটিংয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ১৩ জন স্থানীয় গ্রামবাসীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এরই মধ্যে উচ্চ পর্যায়ের বিশেষ তদন্তকারী দল গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নেইফিউ রিও।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার তথ্য বলছে, ভুল করে অনুপ্রবেশকারী ভেবে এসব গ্রামবাসীদের ওপর গুলিবর্ষণ করে নিরাপত্তা বাহিনী। আর তাতেই এ ঘটনা ঘটে। এতে এক সেনা সদস্যেরও মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। নিরাপত্তা বাহিনীর বেশ কয়েকটি গাড়িও পুড়িয়ে দেয়া হয়।

আরও পড়ুন: ভারতে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় সাংবাদিক গ্রেফতার, প্রতিবাদ করায় অভিযুক্ত আরও ১

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, অনুপ্রবেশকারী রুখতে তিরু-ওটিং রোডে অভিযান চালায় নিরাপত্তা বাহিনী। সেই সময় স্থানীয় গ্রামবাসীদের ‘ভুল করে’ অনুপ্রবেশকারী ভেবে সেখান থেকে তাদের হঠাতে শুরু করে তারা।

এ সময় গ্রামবাসীদের প্রতিরোধের মুখে পড়ে নিরাপত্তাবাহিনী গুলি চালাতে শুরু করে। গুলিতে বেশ কয়েকজন নিহত হওয়ার পরই উত্তেজনা শুরু হয় ওই এলাকায়। পুলিশের দাবি, আত্মরক্ষার জন্য গুলি চালাতে হয়েছে নিরাপত্তা বাহিনীকে।

এ ঘটনাকে ‘দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা’ উল্লেখ করে টুইট করেছেন নাগাল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী নেইফিউ রিও। নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনাও জানান তিনি। এছাড়া দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও টুইট করে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

টুইটে এই ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে নিহতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান অমিত শাহ। পাশাপাশি ঘটনার যথাযথ তদন্ত করে দায়ীদের বিচারের আওতায় আনার আশ্বাসও দেন তিনি।

এসজেড/


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply