রোমানিয়ায় ৫ বাংলাদেশিকে আটকে রেখে মুক্তিপণ দাবি

|

ছবি: সংগৃহীত

স্টাফ রিপোর্টার, মাদারীপুর:

রোমানিয়ায় দালাল চক্রের হাতে বন্দী পাঁচ যুবকের আর্তনাদের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। নির্যাতনের ভিডিও পাঠিয়ে আটককৃত যুবকদের পরিবারের কাছ থেকে দাবি করা হচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে আল-আমিন নামে এক দালাল চক্রের সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী পরিবারের তথ্য মতে, রোমানিয়ায় দালাল চক্রের হাতে বন্দী রয়েছে মাদারীপুর ডাসার উপজেলার বালিগ্রাম ইউনিয়নের খাতিয়াল গ্রামের মৃত সৈয়দ সালমের ছেলে তানভীর, একই গ্রামের সাঈদ হাওলাদারের ছেলে বায়েজিদ হাওলাদার ও রাশেদ হাওলাদার, সদর উপজেলার খোয়াজপুর ইউনিয়নের মিলন মিয়া, মস্তফাপুর ইউনিয়নের সিকিনওহাটা গ্রামের মোফাজ্জেল হাওলাদার।

আটককৃতদের পরিবারের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মাদারপুর সদর উপজেলার হাজিরহাওলা গ্রামের জাফর বেপারীর ছেলে আল আমিন (২৯) ও তার স্ত্রী রিনা বেগম, রাস্তি এলাকার শামিম আকন ও তার স্ত্রী মোসা. সুমি বেগম (২৮), সিরাজ আকন (৬০) ও তার স্ত্রী রানু বেগম তাদের আত্মীয়-স্বজনের মাধ্যমে ইতালিতে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে আটকাপড়া ৫ জনের পরিবারে কাছ থেকে ৩ আগস্ট জনপ্রতি ৮ লাখ টাকা করে নেয়। এক মাসের মধ্যে ইতালিতে পৌঁছে দেয়ার কথা থাকলেও তাদের ইতালি না পাঠিয়ে রোমানিয়া আটকে রাখে। বর্তমানে পাঁচ যুবককে ১৫ দিন ধরে রোমানিয়ায় কোনো এক স্থানে আটকে রেখে গত সপ্তাহে ১০ লক্ষ টাকা করে দাবি করে আসছে চক্রের সদস্যরা।

সম্প্রতি বন্দীদের নির্যাতন ও আর্তনাদের ভিডিও ভাইরাল হলে গত বৃহস্পতিবার মাদারীপুর সদর থানায় ভুক্তভোগী পরিবার অভিযোগ করলে ঐদিনই আল-আমিন নামে প্রতারক চক্রের এক সদস্যকে আটক করে পুলিশ।

আরও পড়ুন: ‘আগামীতে পিছা মার্কা আনুম তাও নৌকা আনুম না’

মাদারীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম মিঞা বলেন, আমারা একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের ভিত্তিতে আল-আমিন নামে একজনকে আটক করেছি। এ ব্যাপারে তদন্ত করে দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply