কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়ায় স্ত্রীকে হাসপাতালে রেখে পালালেন স্বামী!

|

ছবি: সংগৃহীত

কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়ায় স্ত্রীকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ফেলে পালিয়েছেন স্বামী। সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মালদহে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

খবরে বলা হয়, দীর্ঘ ২২ দিন বেসরকারি হাসপাতালে থাকার পর মালদহ জেলা পুলিশের তৎপরতায় নবজাতক এবং তার মাকে রাখা হয়েছে একটি হোমে। পলাতক স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন ওই নারী।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই গৃহবধূর নাম পূজা মার্ডি। বয়স ২১ বছর। স্বামীর নাম সুরজ বেসরা। তিনি পেশায় শ্রমিক। তার বাড়ি বালুরঘাটের মঙ্গলপুর গ্রামে। এক বছর আগে প্রেম করে বিয়ে হয় পূজা এবং সুরজের। ১২ নভেম্বর প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে মালদহের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। তারপর এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন পূজা। অভিযোগ, এরপর থেকেই বাড়ির লোক আর দেখতে আসেননি তাকে। ২২ দিন ধরে ওই হাসপাতালেই ছিলেন তিনি।

এই পরিস্থিতিতে তিনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান, তার পরিবারের লোক পুত্র সন্তান চেয়েছিলেন। কিন্তু কন্যা সন্তান হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ফেলে চলে গিয়েছেন। ঘটনা শুনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ২২ দিন ধরে তার চিকিৎসা করে। এরপর মালদহ জেলা পুলিশ সুপারের সঙ্গে কথা বলেন। তারপর পুলিশের উদ্যোগে ওই নারী এবং তার সন্তানকে হোমে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়ায় স্ত্রীকে হাসপাতালে রেখে পালালেন স্বামী!

ইউএইচ/


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply