‘মালয়েশিয়া থেকে আসা বিমানটিতে কোনো বোমা বা বোমা সদৃশ কিছু পাওয়া যায়নি’

|

মালয়েশিয়া থেকে আসা বিমানটিতে কোনো বোমা বা বোমা সদৃশ কিছু পাওয়া যায়নি বলে নিশ্চিত করেছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করা মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের বিমানটিতে কোনও বোমা বা বোমা সদৃশ কিছু পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন তৌহিদ উল আহসান। ইতোমধ্যে বিমানটিতে তল্লাশি শেষ করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। জানা গেছে, বিমানটিকে প্রস্তত করা হয়েছে পরবর্তী ফ্লাইটের জন্য।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) রাত ৯টা ৪০ মিনিটে ঢাকা বিমানবন্দরে অবতরণ করে মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের এমএইচ-১৯৬ বিমানটি। অবতরণের আগে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ র‍্যাবের মাধ্যমে জানতে পারে যে, বিমানটিতে বোমা থাকতে পারে। অবতরণের সাথে সাথে বিমানটি যাত্রীশূন্য করে যাত্রীদের সমস্ত লাগেজ এবং পুরো বিমানটি তল্লাশি করে বম্ব ডিজপোজাল ইউনিটের সদস্যরা। তাদের তল্লাশিতে বিমানটিতে বোমা বা বোমা সদৃশ কোনো বস্ত পাওয়া যায়নি।

ডগ স্কোয়াড দিয়ে তল্লাশি চালাচ্ছেন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।

বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন তৌহিদ উল আহসান আরও জানান, এটি জরুরি নয় একদম স্বাভাবিক অবতরণ ছিল। বিমানে বোমা থাকতে পারে এমন সংবাদ র‍্যাবের কাছ থেকে পাই। তবে যে রকম তথ্য পাওয়া গেছে, সে রকম কিছু পাওয়া যায়নি, যেই ব্যক্তির নাম বলা হয়েছিল সেই নামের কাউকে পাওয়া যায়নি। রাত ১ টায় লাগেজ স্ক্যান শেষ হয়েছে, এয়ারক্রাফটটি পরবর্তী ফ্লাইটের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

বিস্ফোরকের খোঁজে তৎপর ছিলেন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা, কিন্তু বোমা বা বোমা সদৃশ কিছুই পাওয়া যায়নি।

বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক আরও জানান, আমরা বিমানটির সকল আরোহী ও পুরো বিমানটি সার্চ করেছি। কোনো বোমা বা বোমা সদৃশ কিছু পাওয়া যায়নি। বিমানটি অবতরণ করে রাত ৯টা ৪০ মিনিটে, আর এটি ছিল একটি নিয়মিত ফ্লাইট। বিমানটি অবতরণের পর থেকেই আমরা বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বৃদ্ধি করেছি। ফায়ার সার্ভিসসহ অন্যান্য নিরাপত্তা বাহিনী বিমানবন্দরে সতর্ক অবস্থানে আছেন, বিমানবন্দরের সামগ্রিক নিরাপত্তাও বৃদ্ধি করা হয়েছে।

/এসএইচ



সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply