বাড়ানো হয়েছে বিমানবন্দরের নিরাপত্তা, তল্লাশিতে কিছু পাওয়া যায়নি

|

শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি বিমান জরুরি অবতরণ করে। পরে সেটিতে নিরাপত্তা ঝুঁকিতে তল্লাশি চালায় বিমানবাহিনীর বোম্ব স্কোয়াড। তল্লাশিতে পাওয়া যায়নি কিছুই। যাত্রীদের লাগেজ তল্লাশি শেষ হয়েছে ইতোমধ্যেই, সন্দেহজনক কিছু না পাওয়ায় যাত্রীদের পুনরায় বিমানে ওঠানো শুরু হয়েছে।

কিছুক্ষণ আগে “বিমানটি সম্পূর্ণ নিরাপদ ও এতে সন্দেহজনক কিছুই পাওয়া যায়নি” বলে শাহজালাল বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন তৌহিদ উল হাসানের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছেন বোম ডিসপোজাল ইউনিটের প্রধান।

বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের এ ফ্লাইটটি নিয়মিত এ রুটেই যাতায়াত করে। আর জরুরি অবতরণও ছিলো না এটি। ফ্লাইট এমএইচ-১৯৬ একদম নির্ধারিত সময়েই ঢাকায় অবতরণ করেছে।

কর্তৃপক্ষ আরও জানিয়েছে বিমানটি ল্যান্ড করার কিছুক্ষণ আগে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে একটি বার্তা এসেছিলো যে, এই ফ্লাইটে বোমা সদৃশ কিছু আছে। সেজন্য প্রথমে জরুরি অবতরণ বলা হলেও এটি আসলে রেগুলার ফ্লাইট শিডিউলের মধ্যেই পড়ে।

আরও পড়ুন: নিরাপত্তা ঝুঁকিতে ঢাকায় মালয়েশিয়া থেকে আসা বিমানের জরুরি অবতরণ

আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে শাহজালাল বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন তৌহিদ উল আহসান জানান, আমরা বিমানটির প্রত্যেক আরোহী ও পুরো বিমানটি সার্চ করছি। এখন পর্যন্ত বোমা বা বোমা সদৃশ কিছু পাওয়া যায়নি। বিমানটি অবতরণ করে রাত ৯টা ৪০ এ। এটি ছিলো একটি নিয়মিত ফ্লাইট। আর অবতরণের পর থেকেই আমরা বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বৃদ্ধি করেছি। ফায়ার সার্ভিসসহ অন্যান্য নিরাপত্তা বাহিনী বিমানবন্দরকে সতর্ক অবস্থানে আছেন, বিমানবন্দরের সামগ্রিক নিরাপত্তাও বৃদ্ধি করা হয়েছে।



সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply