দেড় বছর ধরে মর্গে পচছে দুই করোনা রোগীর মরদেহ, পরিবার জানে সৎকার সম্পন্ন

|

ছবি: সংগৃহীত।

গত বছর ভারতে করোনা মহামারি শুরুর পর কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে নিহতদের দেহ সরকারিভাবে সৎকারের নিয়ম চালু হয়। এসব মরদেহকে পরিবারের হাতে তুলে দেয়া হয়নি। তবে সম্প্রতি ভারতের বেঙ্গালুরুকে এক চাঞ্চল্যকর ঘটনা সামনে এসেছে। দেড় বছর পর এসে পরিবারের সদস্যরা জানতে পেরেছেন, তাদের স্বজনের দেহ মর্গে পড়ে থেকে পচতে শুরু করেছে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

নিহত দুর্গার পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত বছরের জুলাই মাসে দুর্গা (৪০) করোনায় আক্রান্ত হলে অনেক হাসপাতাল ঘুরে তাকে ভর্তি করা হয় ব্রুহৎ বেঙ্গালুরু মহানগর পালিকা (বিবিএমপি) হাসপাতালে। সেখানে চারদিন চিকিৎসার পর তিনি মারা যায়। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে সেই সময় জানিয়ে দেয়া হয় নিহত দু’জনের সৎকার সম্পন্ন করেছে প্রশাসন। একই অভিযোগ মণিরাজুর পরিবারেরও।

আরও পড়ুন: চীন-পাকিস্তানের ওপর নজরদারি বাড়াতে চালকহীন সামরিক ড্রোন কিনলো ভারত

তবে সম্প্রতি ওই হাসপাতাল থেকে আবারও ফোন দেয়া হয় এই দুই পরিবারের লোকদের। সেখানে জানানো হয়, সৎকার করা হয়নি দুর্গা ও মণিরাজুকে। গত দেড় বছর ধরে তাদের মরদেহ হাসপাতালের মর্গেই পড়ে আছে। আর এতো দিন থাকার ফলে এবারে মরদেহগুলো পচতে শুরু করেছে।

খবর শুনে গোটা পরিবার চমকে ওঠেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা। এই খবর ছড়িয়ে পড়ার পর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।

এসজেড/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply