নেদারল্যান্ডস থেকেই দক্ষিণ আফ্রিকায় গেছে ওমিক্রন, দাবি ডাচ গবেষকদের

|

ছবি: সংগৃহীত

দক্ষিণ আফ্রিকা নয়; নেদারল্যান্ডস থেকেই করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন ছড়িয়েছে বলে দাবি ডাচ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের গবেষকদের। এর আগে, গত ২৪ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছিলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) নেদারল্যান্ডসের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর পাবলিক হেলথ (আরআইভিএম) বলেছে, গত ২৬ নভেম্বর জোহানেসবার্গ ও কেপটাউন থেকে আমস্টারডামের শিফল বিমানবন্দরে আসা দু’টি ফ্লাইটের অন্তত ১৪ জন আরোহী ওমিক্রন বহন করে নিয়ে আনেন। কিন্তু আমরা গত ১৯ ও ২৩ নভেম্বর সংগ্রহ করা দু’টি নমুনা পরীক্ষায় ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের উপস্থিতি পেয়েছি। তবে এ দুই ব্যক্তি দক্ষিণ আফ্রিকা সফর করেছিলেন কি-না তা এখনও নিশ্চিত নয়।

আরআইভিএম এর দাবি, দক্ষিণ আফ্রিকার অন্তত ৬ দিন আগে নেদারল্যান্ডসে ওমিক্রনের সংক্রমণ শুরু হয়েছে। দেশটির ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর পাবলিক হেলথ এর মতে, ওই দুই ব্যক্তির নমুনায় ওমিক্রন শনাক্তের পর দেশটির নাগরিকদের সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। আর আমস্টারডামের পৌর স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ ইতোমধ্যেই শুরু করেছে কন্টাক্ট ট্রেসিং।

ইতোমধ্যেই ৩২ বারের বেশি স্পাইক প্রোটিন মিউটেশন করা ওমিক্রন বিশ্বজুড়ে নতুন করে ছড়িয়ে দিয়েছে উদ্বেগ। করোনার নতুন এ ভ্যারিয়েন্ট টিকা প্রতিরোধী হতে পারে বলে মনে করেন অনেক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ।

উল্লেখ্য, ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে এখন পর্যন্ত নেদারল্যান্ডসেই সর্বোচ্চ ১৬ জনের ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নেদারল্যান্ডসে দৈনিক ২০ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। হাসপাতালের ওপর চাপ কমাতে দেশটিতে কঠোর করোনা বিধি-নিষেধ জারি হয়েছে গত রোববার থেকে।

/এসএইচ


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply