রামপুরায় দুই বাসের গতি প্রতিযোগিতার বলি মাঈনুদ্দিন

|

রাজধানীর রামপুরায় অনাবিল পরিবহনের একটি বাসের চাপায় মাঈনুদ্দিন নামে এক এসএসএসি পরীক্ষার্থী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় বাসচালক ও হেলপারকে আটক করেছে পুলিশ। দুর্ঘটনার পরপরই নিহতের সহপাঠী ও বিক্ষুদ্ধ জনতা সড়কে নেমে বেশ কয়েকটি বাস ভাঙচুর করে ও আগুন দেয়।

রাজধানীতে দুই বাসের বেপরোয়া গতি প্রতিযোগিতার বলি নিহত মাঈনুদ্দিন ইসলাম দুর্জয় রামপুরার একরামুন্নেসা স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে সদ্য এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিল। সোমবার (২৯ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে রামপুরা বাজারের সামনে রাস্তা পার হওয়ায় সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

অনাবিল পরিবহনের একটি বাস মাঈনুদ্দিনকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। তার সাথে আহত হয় আরও দুজন। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে, মাঈনুদ্দিনের সহপাঠী ও বিক্ষুব্ধ জনতা রাস্তা অবরোধ করে। আগুন দেয় অন্তত ১২টি বাসে। বাসগুলোর বেশিরভাগই অনাবিল পরিবহনের।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কয়েকটি ইউনিট ও পুলিশের একাধিক টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে জনতাকে সরিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। মতিঝিল বিভাগের উপ পুলিশ কমিশনার মো. আব্দুল আহাদ জানান, বাসচালক ও হেলপারকে ইতোমধ্যে আটক করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : বাসচাপায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু, একে একে ১২টি বাসে আগুন দিলো বিক্ষুব্ধ জনতা

প্রায় ১ ঘণ্টা পর পুলিশ বিক্ষুব্ধদের সড়ক থেকে সরিয়ে দিতে সক্ষম হয়। নিহত মাঈনুদ্দিন পূর্ব রামপুরার তিতাস রোডে থাকতো। মধ্যরাতে সেখানে গিয়ে জানা যায়, সন্তান হারানোর খবর তখনও জানানো হয়নি দুর্জয়ের বাবা-মাকে।

/এসএইচও


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply