রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ হয়ে উঠেছে আরসা

|

পালিয়ে যাওয়ার সুবিধার্থে ক্যাম্পের বেশ কিছু স্থানে কাঁটাতারের বেড়া কেটে পথ তৈরি করে রেখেছে আরসা সদস্যরা।

রিয়াজ রায়হান:

দিনদিনই গ্রুপিং চরমে উঠছে রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে। বড় ক্যাম্পগুলোতে সাধারণ রোহিঙ্গাদের ওপর আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি, আরসার সদস্যদের নির্যাতন ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে বলে অভিযাগ পাওয়া গেছে। ক্যাম্পগুলো ঘুরে অন্তত বারোজন গ্রুপ কমান্ডারের নাম পেয়েছে যমুনা নিউজ টিম। যাদের বিরুদ্ধে রয়েছে হত্যা, অপহরণ ও নির্যাতনের একাধিক অভিযোগ। সন্ধ্যার পর সশস্ত্র আরসা কর্মীদের ভয়ে ঘর থেকে বের হওয়ার সাহস পায় না সাধারণ রোহিঙ্গারা।

রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ডের পর মাদরাসায় ঢুকে ছাত্র শিক্ষকসহ ৬ জনকে খুন করা হয়। এর আগেও ঘটেছে এরকম একাধিক ঘটনা। ক্যাম্পের ভেতরেই বিচ্ছন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর হাতে গত চার বছরে মারা গেছে শতাধিক রোহিঙ্গা। আহত হয়েছে তিন শতাধিক।

আরও পড়ুন : রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্র কীভাবে ঢুকলো

উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো ঘুরে এসব সন্ত্রাসী গোষ্ঠী সম্পর্কে বেশকিছু তথ্য পাওয়া গেছে। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ আরসার বিরুদ্ধে। তাদের বিরুদ্ধে অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগ করলেন কুতুপালং ক্যাম্পে থাকা কয়েকজন নারী।

জানা যায়, মিয়ানমারে সশস্ত্র ট্রেনিং নেয়া আরসা সদস্যরা ক্যাম্পে আধিপত্য বিস্তারে জড়ায় মাদকপাচারসহ নানা অপরাধে। আরসার নামধারী বেশ কয়েকজন ক্যাম্প কমান্ডারের নাম পেয়েছে যমুনা নিউজ টিম। যারা নিজেদের মধ্যে কয়েকটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে করে যোগাযোগ। যদিও এক টুইটবার্তায় এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে আরসা।

আরও পড়ুন : রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ খুনের রহস্য

রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোর দিনের প্রাণচাঞ্চল্য আতঙ্ক হয়ে ফিরে আসে সন্ধ্যার পর। ক্যাম্পের বাসিন্দারা জানান, সন্ধ্যার পর ক্যাম্পের ভেতরেই বিভিন্ন স্থানে চলে সশস্ত্র মহড়া। পালিয়ে যাওয়ার সুবিধার্থে ক্যাম্পের বেশ কিছু স্থানে কাঁটাতারের বেড়া কেটে পথ তৈরি করে রেখেছে তারা। তবে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ১৪ এপিবিএনের অধিনায়ক নাইমুল হক বলছেন, ক্যাম্পগুলোতে সংঘবদ্ধ কোনো সন্ত্রসী গোষ্ঠী নেই, যারা অপকর্ম করছে তারা বিছিন্ন গোষ্ঠী।

আরও পড়ুন :  যে কারণে খুন করা হয়েছে মুহিবুল্লাহকে

সাধারণ রোহিঙ্গাদের সন্ত্রাসী বানিয়ে প্রত্যাবাসনে বিঘ্ন সৃষ্টি করতেই বিচ্ছন্ন কিছু গোষ্ঠী এসব অপকর্ম করছে বলেও মনে করেন ওই কর্মকর্তা।

/এসএইচও


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply