রামপুরায় বাস চাপায় আরেক শিক্ষার্থীর মৃত্যু, একাধিক বাসে বিক্ষুব্ধ জনতার আগুন

|

রাজধানীর রামপুরায় অনাবিল পরিবহনের একটি বাসের চাপায় মৃত্যুবরণ করেছে একরামুন্নেসা স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী মাঈনুদ্দিন। ঘটনার পর ১২টি বাসে আগুন দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা। ভাঙচুর হয়েছে অনেকগুলো গাড়ি। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ সময় অনাবিল পরিবহনের বাস আটকে আগুন দিতে থাকে বিক্ষুব্ধ জনতা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১২টি বাসে আগুন দেয় বিক্ষুব্ধ জনতা।

জানা গেছে, রামপুরা টিভি রোডের সামনের রাস্তা পারাপারের সময় একটি দ্রুতগামী অনাবিল বাসচাপায় ঘটনাস্থলেই মাঈনুদ্দিন মারা যায়। এ সময় মাঈনুদ্দিনের সাথে তার দুলা ভাই সাদ্দাম ছিলেন। তিনি আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। মাইনুদ্দিন পরিবারের সাথে পূর্ব রামপুরা তিতাস রোড এলাকায় থাকতো। তার বাবার নাম আব্দুর রহিম।

রামপুরা থানার এসআই তাপস কুমার জানান, রাত ১০টার দিকে সড়কে বাসের চাপায় এক তরুণের নিহত হওয়ার খবর পেয়ে থানার কর্মকর্তারা সেখানে পৌঁছায়।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষে যোগাযোগ করা হলে ডিউটি অফিসার এরশাদ আলী বলেন, রামপুরা সড়কে বাসে আগুনের খবর পেয়ে তাদের বাহিনীর কয়েকটি ইউনিট আগুন নেভাতে পৌঁছে যায়।

(বিস্তারিত আসছে)।

আরও পড়ুন: গুলিস্তানে ডিএসসিসির গাড়ি চাপায় নটরডেম কলেজ ছাত্রের মৃত্যু

দুর্ঘটনার বিক্ষুব্ধ জনতার দেয়া আগুনে পুড়ছে বাস।

সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply