ভোলায় বহিষ্কারের আগেই দলীয় পদ ছাড়লেন বিদ্রোহী প্রার্থী

|

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে লড়তে ভোলা ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ সভাপতির পদ ছেড়েছেন আবুল কাশেম মোল্লা।

নৌকা প্রতীকে নির্বাচনের অনুমোদন না পাওয়ায় বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে এবারের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে লড়তে ভোলার চরফ্যাশনের ওসমানগঞ্জ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ সভাপতির পদ ছেড়েছেন আবুল কাশেম মোল্লা নামে এক আওয়ামী লীগ নেতা।


তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার বিরুদ্ধে চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ায় ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার ওসমানগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কাশেম মোল্লাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে- এমন গুঞ্জন গতকাল শুক্রবার থেকে চরফ্যাশনের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। তবে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলতে পারছিলো না কেউই।

আবার কেউ কেউ বলছিলেন, ওই চেয়ারম্যান প্রার্থী নিজেই দল থেকে পদত্যাগ করেছেন। তবে ওসমানগঞ্জ ইউনিয়নের নৌকা মার্কার আওয়ামী লীগের দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী আশরাফুল আলম ফোটনের দাবি শুধু ওই বিদ্রোহী প্রার্থীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে চলবে না। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে ওই প্রার্থীর সাথে যারা উস্কানি দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে।

দল থেকে বহিষ্কারের বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মমিন টুলু জানান, ওসমানগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কাশেম মোল্লা ইউপি নির্বাচনে নৌকার বিরুদ্ধে প্রার্থী হওয়ার আগেই দল থেকে পদত্যাগ করেছেন। বহিষ্কারের বিষয়টি চরফ্যাশন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের হাতে। তারা সেখান থেকে প্রস্তাব পাঠালে জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

চরফ্যাশন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম ভিপি বলেন,ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মনোনয়ন পত্র দাখিলের পরেই পদত্যাগ করেছেন।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে ওসমানগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে রয়েছেন আবুল কাশেম মোল্লা। গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি বর্তমান চেয়ারম্যান ও নৌকা মার্কার প্রার্থী আশরাফুল আলম (ফোটন) এর প্রস্তাবকারী ছিলেন। এবারে তিনি নিজেই চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন চান। কিন্তু তা না পেয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আনারস প্রতীক নিয়ে নৌকার বিরুদ্ধে নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন। দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী থাকা সত্ত্বেও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বেশ কিছু নেতাকর্মী দল থেকে বাদ পড়া স্বতন্ত্র ওই প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছে বলেও জানা গেছে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply