পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে সহানুভূতি দেখাতে গিয়ে তোপের মুখে এমপি হারুন

|

ফাইল ছবি।

স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন চলছে। ঠিক এই সময় পাকিস্তান ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর এবং মাঠে পাকিস্তানি পতাকা ওড়ানো নিয়ে বিতর্ক চলছে দেশে। এমন প্রেক্ষাপটে জাতীয় সংসদে পাকিস্তানের পক্ষ নিয়ে বক্তব্য দিলেন বিএনপির সাংসদ হারুনুর রশীদ। ‘কোনো দেশের প্রতি বিদ্বেষমূলক মনোভাব দেখানো ঠিক নয়।’ এমন বক্তব্য দিয়েছেন তিনি। এই বক্তব্যের পর সরকারি দলের তোপের মুখে পড়েন হারুন।

শনিবার (২৭ নভেম্বর) জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে এ বিষয়ে বক্তব্য দেন হারুন। তার এই বক্তব্যের সময় সরকারি দলের সদস্যরা তুমুল হইচই করে প্রতিবাদ জানান। পরে তার

এমন বক্তব্যের জবাবে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, সাংসদ হারুন যেভাবে পাকিস্তানের পক্ষ নিয়ে বক্তব্য রেখেছেন, তাতে তাঁদের চরিত্র বেরিয়ে এসেছে।

বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য হারুন বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট টুর্নামেন্ট হচ্ছে। পাকিস্তান ও বাংলাদেশ। পাকিস্তান ক্রিকেট টিম বাংলাদেশের সঙ্গে খেলছে। বাংলাদেশ যাই খেলুক না কেন, পাকিস্তানের সমর্থকেরা তাদের পতাকা ওড়াচ্ছে। এটাকে কেন্দ্র করে একটা বিব্রতকর অবস্থা তৈরি হয়েছে। মনে রাখতে হবে, তারা কিন্তু আমাদের দেশে মেহমান, অতিথি। আমাদের দেশের ক্রিকেট, আমাদের দেশের ফুটবল, আমাদের দেশের মেয়েরা সারা পৃথিবীতে খেলছে। সেখানে পতাকা ওড়ে না বাংলাদেশের?

হারুন আরও বলেন, পাকিস্তান টিম তো আসার দরকার ছিল না। পাকিস্তানি টিমকে কেন খেলতে দিয়েছেন? খেলতে দিতেন না। দরকারই ছিল না। আপনি তো তাদের অনুমতি দিয়েছেন। তারা এখানে এসেছে। এটি ঠিক নয়। একটি দেশের প্রতি বিদ্বেষপূর্ণ আচরণ ঠিক নয়। এটি আমাদের জন্য সম্মানের নয়, গৌরবের নয়।

এসময় সরকারি দলের সদস্যরা ব্যাপক হট্টগোল করে। পরে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে হারুনের বক্তব্যের জবাব দেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

খালিদ মাহমুদ বলেন, বিএনপির সাংসদ হারুনুর রশিদ যেভাবে পাকিস্তানের পক্ষ অবলম্বন করে সংসদে কথা বললেন, এতে তার প্রকৃত চরিত্র বেরিয়ে এসেছে। তারা যে রাজাকার, আলবদর, আলশামসের পক্ষে কথা বলছেন ও রাজনীতি করছেন, তারা যে দেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করেন না, সেটা প্রমাণিত হয়েছে।

উল্লেখ্য বাংলাদেশ পাকিস্তান ক্রিকেট সিরিজ নিয়ে সমালোচনার শুরু হয় মিরপুর টি-টোয়েন্টি ম্যাচে কিছু বাংলাদেশি পাকিস্তান সমর্থক পাকিস্তানের পক্ষ নেয়। তারা পাকিস্তানের পতাকা প্রদর্শন ও জার্সি গায়ে দিয়ে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করে। এতে আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। কেউ কেউ প্রতিরোধের ডাক দেয়।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply