ধর্ষণের প্রমাণ লোপাটে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা

|

ধর্ষণের পর প্রমাণ মুছে ফেলার জন্য পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। গত শুক্রবার আসামের নগাঁওয়ে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, স্কুল থেকে ফিরে বাড়িতে একাই ছিল পঞ্চম শ্রেণির ওই ছাত্রী। মা–বাবা দু’‌জনেই কাজে বেরিয়েছিলেন। সেইসময় ২১ বছরের জাকির হুসেন বাড়িতে ঢুকে ছাত্রীকে ধর্ষণ করে। পরের তাতে যোগ দেয় ১০ এবং ১১ বছরের দুই বালক। ধর্ষণের পর প্রমাণ লোপাটের জন্য তিনজনে মিলে ছাত্রী গায়ে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারা চেষ্টা করে।  প্রায় ৯০ শতাংশ পুড়ে যাওয়ার পর হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছিল শিশুটি। শুক্রবার রাতেই মৃত্যু হয় তার।

এই ঘটনায় অভিযুক্ত দুই বালককে গ্রেপ্তার করেছে। যাদের বয়স ১০ এবং ১১ বছর। যদিও এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত ২১ বছরেরে জাকির হুসেন পলাতক।

পুলিস জানিয়েছেন, মৃত্যুর আগে নির্যাতিতার বয়ান নেওয়া হয়েছে। তার ভিত্তিতেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে দুই বালককে। মেডিকেল টেস্টেই ধর্ষণের প্রমাণ মিলেছে বলে জানিয়েছেন পুলিস সুপার।









Leave a reply