প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিতে চট্টগ্রাম রাঙালেন লিটন

|

প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন লিটন। ছবি: সংগৃহীত

ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি পেয়ে চট্টগ্রাম শহর রাঙালেন লিটন দাস। এর আগে টেস্ট ক্যারিয়ারে ২৬ টেস্টে ৪৩ ইনিংসে ব্যাট করে ১০টি হাফ সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন লাইটন, যার মাঝে আছে ৯৫ ও ৯৪ রানের দুটি ইনিংস। আর আজ লিটন পেলেন তার অতিকাঙ্ক্ষিত টেস্ট সেঞ্চুরির দেখা। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শুরুর বিপর্যয় সামলিয়ে মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে ৫ম উইকেটে রেকর্ড পার্টনারশিপে হাঁকানো এই সেঞ্চুরি অবশ্যই এই ডানহাতি ব্যাটারের ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা ইনিংস।

তবে ৯৯ রান থেকে সেঞ্চুরি পাবার জন্য যেভাবে অধৈর্য্য হয়ে পড়িমড়ি ছুটে রান নিয়েছেন লিটন, সেটাইতেই স্পষ্ট হয়েছে যে এই সেঞ্চুরি কতটা আরাধ্য ছিল এই স্টাইলিশ ব্যাটারের কাছে। বাঁহাতি অর্থোডএক্স স্পিনার নাওয়াজে বলকে হালকা ব্যাটে মিড অফে ঠেলে দিয়েই সিঙ্গেলের জন্য দৌড় শুরু করেন লিটন। পাকিস্তান ফিল্ডার সরাসরি থ্রোতে স্ট্যাম্প ভেঙে দিতে পারলে সেঞ্চুরির আক্ষেপ লম্বাই হতো লিটনের। সেঞ্চুরিয়ান লিটন ব্যাট করছেন ১০৭ রান নিয়ে।

সেঞ্চুরির দিকে এগোচ্ছেন মুশফিকুর রহিম। সলিড ব্যাটিংয়ের দারুণ প্রদর্শনী দেখিয়ে মিস্টার ডিপেন্ডেবল ব্যাট করছেন ৮১ রান নিয়ে। বাংলাদেশের পক্ষে টেস্টে ৫ম উইকেট জুটিতে আজ রেকর্ড পার্টনারশিপ গড়লেন লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনে অবিচ্ছিন্ন ১৯২ রানের জুটির পথেই আগের রেকর্ডটি ভেঙে দেন এই দুই ব্যাটার। ৫ম উইকেট জুটিতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ জুটি ছিল ১৪৪ রানের। ২০০৮ সালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১৪৪ রানের সেই জুটিতেও ছিলেন মুশফিকুর রহিম। সেদিন এই ডানহাতি ব্যাটারের সাথে ছিলেন মেহরাব হোসেন।

শেষ সেশনের খেলা হচ্ছে এখন। নেয়া হয়েছে নতুন বল। প্রতিবেদনটি লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৪ উইকেট হারিয়ে ২৪৬ রান।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply