‘যুক্তরাষ্ট্র হয়তো দুর্বল গণতন্ত্রের দেশগুলোকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে, তাই আমন্ত্রণ পাইনি’

|

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

যুক্তরাষ্ট্র গণতন্ত্র সম্মেলনে দুর্বল গণতন্ত্রের দেশগুলোকে আমন্ত্রণ জানিয়ে থাকতে পারে আর সে কারণেই হয়তো বাংলাদেশ আমন্ত্রণ পায়নি, এমনটাই দাবি করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে শান্তি ও সংঘর্ষ বিভাগ ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আয়োজিত জলবায়ু ন্যায্যতা বিষয়ক সেমিনারে আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রই জানে তারা কী প্যারামিটারে দেশগুলোকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে। তবে বাংলাদেশকে বাদ দেয়া হয়েছে এ বিষয়ে আমি একমত নই। কারণ, এই সম্মেলন দুই ধাপে অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম ধাপে কয়েকটি দেশ যোগ দেবে। আমরা হয়তো দ্বিতীয় পর্বে আমন্ত্রণ পাব।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, কারো প্রেসক্রিপশনে বাংলাদেশের গণতন্ত্র চলে না। আমাদের গণতন্ত্র কীভাবে চলবে তা নিয়ে আমাদের ভাবা উচিত। আমরা জনগণের কল্যাণে কাজ করি। আমরা প্রতিনিয়ত গণতন্ত্রের উন্নয়নের চেষ্টা করছি।

উল্লেখ্য, আগামী বছরের ৯ ও ১০ জানুয়ারি ভার্চুয়াল গণতন্ত্র সম্মেলনের আহ্বান করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। যেখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বিশ্বের ১১০টি দেশকে। এ সম্মেলনে বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ না জানানো হলেও প্রতিবেশী দেশ ভারত, পাকিস্তান ও নেপালকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply