মৃত্যু ফাঁদের অপর নাম ‘সুইসাইড ব্রিজ’

|

ছবি: সংগৃহীত।

সুইসাইড ব্রিজ! শুনতে অবাক লাগলেও দক্ষিণ আফ্রিকার পোর্ট এলিজাবেথের একটি ব্রিজ স্থানীয়দের কাছে পরিচিতি পেয়েছে এ নামেই। তথ্যমতে, এ পর্যন্ত ব্রিজটি থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করেছে ৮৭ জন।

পোর্ট এলিজাবেথ থেকে কেপটাউন যাওয়ার পথে চোখে পড়বে ব্রিজটি। এর সৌন্দর্য্য যে কাউকে মুগ্ধ করার ক্ষমতা রাখলেও এটি স্থানীয়দের কাছে এক আতঙ্কের নাম। ৪৬০ ফুট উচ্চতার ব্রিজটিকে আত্মহত্যার জন্য বেঁছে নেন স্থানীয়রা। এ পর্যন্ত সেখান থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করেছে অন্তত ৮৭ জন মানুষ। আর এ কারণেই ব্রিজটি পরিচিতি পেয়েছে সুইসাইড ব্রিজ নামে।

১৯৭১ সালের ১১ নভেম্বরে এটি নির্মিত হওয়ার ১২ দিন পরই ঘটে প্রথম আত্মহত্যার ঘটনা। আর সর্বশেষ আত্মহত্যার ঘটনাটি ঘটে চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে। ব্রিজের আশপাশে মানুষ চলাচল কম থাকায় আত্মহত্যার জন্য ব্রিজটিকে বেঁছে নেয়া হয় বলে ধারণা অনেকের।

২০০৩ সালে জোহানেসবার্গের এক সাংবাদিক আত্মহত্যারোধে একটি ফান্ড গঠন করেন। পরে সেই ফান্ডের অর্থে ব্রিজটিতে বসানো হয় ক্যামেরা ও টেলিফোন সেন্টার। এ ছাড়া ব্রিজের ওপর সতর্ক নজর রয়েছে পুলিশেরও। তবে, এরপরও বন্ধ করা যায়নি আত্মহত্যার ঘটনা।

পরে আত্মহত্যারোধে ২০১৩ সালে ব্রিজের ওপর বসানো হয় ২.৭ মিটার উচ্চতার নেট। তবে এতসব ব্যবস্থা নেয়ার পরও পুরোপুরি বন্ধ করা যায়নি আত্মহত্যা।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply