যুদ্ধাপরাধ মামলার সাক্ষী হওয়ায় মুক্তিযোদ্ধাকে কোপানোর অভিযোগ পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে

|

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের মহেশখালী পৌরসভার মেয়র মকছুদ মিয়া ও তার স্বজনদের বিরুদ্ধে আমজাদ হোসেন (৬৫) নামে এক মুক্তিযোদ্ধাকে কুপিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। আহত মুক্তিযোদ্ধা মহেষখালী উপজেলার সাবেক মুক্তিযুদ্ধা কমান্ডার ও গোরকঘাটা বাজার এলাকার মৃত লাল মিয়ার ছেলে। বর্তমানে তিনি কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৮টায় পৌরসভার গোরকঘাটা হিন্দুপাড়া রাস্তার মোড়ে ওই ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে আহত মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন বলেন, রিক্সা নিয়ে গোরকঘাটা বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে হিন্দুপাড়া রাস্তার মোড়ে রিকশার গতিরোধ করে মেয়র মকছুদ মিয়া, তার ছেলে নিশান, ভাগিনা মামুন এবং আত্মীয় মহিউদ্দিন ও শামসুদ্দিনসহ আরও বেশ কয়েকজন। এ সময় তারা আমাকে এলোপাতাড়ি মারধর করে এবং কুপিয়ে জখম করে রাস্তায় ফেলে চলে যায়। যুদ্ধাপরাধ মামলার বাদী ও সাক্ষী হওয়ায় এবং চিংড়ি ঘের লুটের মামলা করায় এ হামলা বলে দাবি করেন তিনি।

মুক্তিযোদ্ধার ছেলে মো. দেলোয়ার বলেন, ‌‌জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে পৌর মেয়র মকছুদ তার দলবল নিয়ে আমার বাবাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায়। কিছুদিন আগে আমার বাবা মেয়রের বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন। এরপর থেকে এলাকায় আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছিলাম। এ নিয়ে একটি সংবাদ সম্মেলনও করেছিলাম। এর জেরে আজ আমার বাবারও উপর হামলা চালায়।

মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবদুল হাই বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধে দুই পক্ষের বিরোধ চলে আসছে। এ সংক্রান্ত বিষয়ে এর আগে মামলা করেছিলেন মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন। তবে হামলার ঘটনায় থানায় এখনো মামলা হয়নি। তিনি লিখিত অভিযোগ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply