প্রেমিকের সাথে ঘর ছাড়া স্ত্রী, অপমানে শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে আত্মহত্যা স্বামীর

|

ছবি: সংগৃহীত।

ভালোবেসে বিয়ে করা স্ত্রী ফের পড়েছেন অন্য আরেক যুবকের প্রেমে। প্রেমিকের সাথে তোলা অন্তরঙ্গ ছবি স্বামীকে দেখাতেও পিছপা হননি সেই নারী। শেষে ২০ বছরের দাম্পত্য জীবন ফেলে পালিয়েছেন নতুন প্রেমিকের বাইকে চেপে। আর এতেই অভিমানে আত্মঘাতী হয়েছেন স্বামী, স্ত্রীর বাবার বাড়িতে গিয়েই করলেন আত্মহত্যা। খবর জি নিউজের।

সোমবার (২২ নভেম্বর) এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনায়। জানা গেছে, নিহত ব্যক্তির নাম সুদেব দে। প্রায় দু’দশক আগে গ্রামেরই মেয়ে টুম্পাকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন তিনি। ওই দম্পতির এক কন্যাসন্তান রয়েছে। তবে এরই মধ্যে টুম্পার সাথে স্থানীয় এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয় বলে অভিযোগ ওঠে। সেই যুবকের সাথে এর আগেও দু’বার পালিয়ে যান টুম্পা। স্বামী সুদেবই বুঝিয়ে-শুনিয়ে নিয়ে এসেছেন প্রতিবার। তবে টুম্পার মন ছিল সেই প্রেমিকের কাছেই।

সুদেবের পরিবারের অভিযোগ, টুম্পা তার সাথে সেই যুবকের অন্তরঙ্গ ছবি দেখিয়েছিলেন সুদেবকে। সম্প্রতি বাড়ির সবার সামনে প্রেমিকের বাইকে চেপে ফের ঘরছাড়া হন টুম্পা। আর এতেই অপমানে সোমবার শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন সুদেব।

মৃত্যুর আগে একটি সুইসাইড নোটে লিখে গেছেন তিনি। সেখানে সুবেদের স্বাক্ষরসহ লেখা আছে, ‘আমার মৃত্যুতে এই বাড়ি বা অন্য় কেউ দায়ী নয়। আমি স্বেচ্ছায়, লজ্জায়, অপমানে এই পথ বেছে নিতে বাধ্য হলাম’। তার মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় এলাকায় নেমেছে শোকের ছায়া।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply