নরসিংদীতে ভোট নিয়ে শঙ্কা বাড়ছেই

|

নরসিংদীতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী হিসেবে অংশগ্রহণের প্রবণতা বেড়েছে। এতে সংঘাতও বাড়ছে। আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়ায় বেড়েছে প্রাণহানি। তৃতীয় ধাপেও তাই সহিংসতামুক্ত ভোট হবে কিনা, তা নিয়ে সংশয় থাকছেই। গুরুত্বপূর্ণ প্রতিটি ইউনিয়নের ওপর গভীর নজর রাখছে নির্বাচন কমিশন।

গেলো দুই দফা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে উত্তেজনার তুঙ্গে ছিল নরসিংদী। দুবারই সহিংসতা হয়েছে, ঝরেছে বেশ কয়েকটি প্রাণ।

চোখ রাঙাচ্ছে তৃতীয় দফার নির্বাচনও। জেলার ২২টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এবারও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ৩৫ জন। যা নিয়ে এরইমধ্যে ঘটছে সংঘর্ষ, হামলা-পাল্টা হামলা। স্বতন্ত্রদের দাবি, জনমত উপেক্ষা করে দেয়া হয়েছে প্রতীক। আর দলীয় মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীদের দাবি, দলের চাইতে ব্যক্তিস্বার্থ বড় বিদ্রোহীদের কাছে।

বহু বছর ধরে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে দুপক্ষের সংঘর্ষের রীতি চলে আসছে নরসিংদীর বিভিন্ন প্রত্যন্ত এলাকায়। তবে এবার সংঘর্ষে ব্যবহার হচ্ছে আগ্নেয়াস্ত্র। এর ফলেই প্রাণহানি বেড়েছেন বলে মনে করছেন স্থানীয় রাজনীতিবিদরা।

সহিংসতার বিষয়টি মাথায় রাখতে হচ্ছে রিটার্নিং কর্মকর্তাকেও। এ দফায় এ নিয়ে তারা বেশ সতর্ক অবস্থানে আছেন বলে জানালেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মেছবাহ উদ্দীন।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তৃতীয় ধাপের ভোটগ্রহণ হবে ২৮ নভেম্বর হবে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply