চার কানওয়ালা সেলিব্রেটি বিড়াল নিয়ে আলোড়ন স্যোশাল মিডিয়ায়

|

চার কানওয়ালা এক বিড়াল নিয়ে তোলপাড় চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। রীতিমতো সেলিব্রিটির মর্যাদা পেয়েছে মাইডাস নামের বিড়ালটি। স্যোশাল মিডিয়ায় তার ফলোয়ার আছে ৭৩ হাজারেরও বেশি।

তুরস্কের চার কানওয়ালা বিড়ালটি এখন বিস্ময় ছড়াচ্ছে নেট দুনিয়ায়। তুরস্কের আঙ্কারায় মিলেছে বিরল এ বিড়ালের সন্ধান। তার অদ্ভুত শারীরিক গঠনকে জিনগত ক্রুটি হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন চিকিৎসকরা। মাইডাসের নামের পেছনেও রয়েছে চমকপ্রদ ঘটনা। বিড়ালটির মালিক গ্রিক পৌরাণিক চরিত্র কিং মিডাসের নামানুসারে বিড়ালটির নাম রেখেছেন, ঈশ্বরের অভিশাপে অভিশপ্ত হয়ে যার কান গাধার কানের রূপ নিয়েছিলো।

চারকান ওয়ালা আলোচিত বিড়াল মিডাস।

জানা গেছে, চার মাস আগে আঙ্কারার এক রাস্তায় জন্মায় ব্যতিক্রমী এ বিড়ালটি। জন্মের পরই বিড়ালটি দত্তক নেন ক্যানিস নামের স্থানীয় এক বাসিন্দা। বিড়ালটির মালিক ক্যানিস ডোজমেকি বলেন, মিডাস খুবই প্রাণবন্ত বিড়াল, সারাক্ষণ কাছেকাছে থাকবে, সে কোলে বসে থাকে, কোলেই ঘুমায়। আমার আরও দুটি কুকুর আছে, ওদের সাথেও ভাব জমিয়ে ফেলেছে সে। এখন আমাদের পরিবারের সদস্যে পরিণত হয়েছে মিডাস।

দত্তক নেয়া প্রসঙ্গে বিড়াল মালিক ক্যানিস ডোজমেকি বলেন, বিড়ালটি বেওয়ারিশভাবে রাস্তায় ঘুরবে সেটা আমি চাইনি। এ চিন্তা থেকেই মিডাসকে দত্তক নেয়ার সিদ্ধান্ত নিই। আশা করি মিডাসের জনপ্রিয়তা মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়াবে। পোষ্য কেনার চেয়ে দত্তক নেয়ার প্রতি মানুষ আগ্রহী হবেন।

বিস্ময় বিড়াল মাইডাসের চার কান নিয়ে প্রতিনিয়তই জাগছে প্রশ্ন। বিরল এই শারীরিক গঠনের কারণই বা কি? জীনগত ক্রটির কারণেই বিড়ালটির আশ্চর্যজনক এ শারীরিক গঠন- বলছেন চিকিৎসকরা।

বিড়ালটির চারকান থাকার ব্যাপারে স্থানীয় পশু চিকিৎসক রিসাত নুরি বলেন, জিনগত ত্রুটির কারণেই মাইডাস চারটি কান নিয়ে জন্মেছে। তবে বিড়ালটির কানের অভ্যন্তরীন গঠন ঠিকই আছে। শারীরিক সুস্থতার ওপরও এর কোনো প্রভাব নেই। চার কান নিয়েও অন্য বিড়ালের মতই মাইডাস স্বাভাবিক জীবন যাপন করছে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply