এই সাতটি খাবার যত খুশি খেতে পারেন, ওজন বাড়ার ভয় নেই

|

অনেকে আছেন বেশি খেলে মোটা হওয়ার দুশ্চিন্তায় থাকেন অনেকে। তাই মন চাইলে কিছু খেতে পারেন না। আবার অনেকে ডায়েট করতে গিয়ে এতই কম খান যে স্বাস্থ্যহীনতার ঝুকিতে পড়েন। কিন্তু এমন সাতটা খাবার রয়েছে যেটা আপনি যত খুশি খেতে পারেন। ওজন বাড়ার কোনো ভয় নেই এই খাবারগুলিতে।

জেনে নিন এমন সাতটা খাবারের নাম

১) আলুসেদ্ধ

আলুতে কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণ অনেক বেশি থাকে তাই অনেকেই এটা থেকে দূরে থাকতে পছন্দ করেন। কিন্তু আলুসেদ্ধ স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই ভালো জিনিস। এটা পুষ্টিকর এবং তৃপ্তির মাপকাঠিতেও সবার ওপরে থাকে। একবার আলুসেদ্ধ খেয়ে নিলে আপনার পেট অনেকক্ষণ ভর্তি থাকবে।

২) ডিম
সুস্থ থাকার জন্য আপনার শরীর যেরকম পুষ্টি চায়, সেইরকম পুষ্টিই ডিমে রয়েছে। একটা গোটা ডিমে যতটা প্রোটিন থাকে তার অর্ধেক প্রোটিন থাকে তার কুসুমে। ডিমও মানুষের পেট ভর্তি রাখতে সাহায্য করে। একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে প্রাতরাশে ডিম খেয়ে নিলে সারাদিনে শরীরে ক্যালোরি কম প্রবেশ করে।সারাদিনই পেট ভর্তি থাকবে।

৩) মাছ

বাঙালির অত্যন্ত প্রিয় এই বস্তুটিতে রয়েছে ওমেগা ৩ ফ্যাট এবং প্রোটিন। তৃপ্তির পরিমাপে অনেক পুষ্টিকর খাবারের থেকেই ওপরে থাকে মাছ। মাছ একবার খেয়ে নিলেও পেট অনেকক্ষণ ভর্তি থাকে। ডিমের মতো মাছ খেয়ে নিলে শরীরে কম পরিমাণে ক্যালোরি যায়।

৪) পনির
পনিরে প্রোটিন বেশি এবং ক্যালোরি কম। এ ছাড়াও পনিরে রয়েছে ভিটামিন বি, ক্যালসিয়াম এবং ফসফরাস।

৫) পপকর্ন

অন্য কোনো জলখাবারের থেকে পপকর্নে ফাইবারের পরিমাণ বেশি। একদিকে ক্যালোরি কম অন্যদিকে ঘনত্ব বেশি। তাই পেটে অনেকটা জায়গা নিয়ে নেয় এটি। একবার এটি খেয়ে নিলে পেট ভর্তি থাকে অনেকক্ষণ।

৬) চর্বিহীন মাংস

প্রোটিনে ভর্তি থাকে চর্বিহীন মাংস। তৃপ্তির পরিমাপেও অনেক ওপরে থাকে এই খাবার। গবেষণায় দেখা গিয়েছে মধ্যাহ্নভোজনের সময়ে চর্বিহীন মাংস খেলে নৈশভোজের সময়ে সেই ব্যক্তি অন্য দিনের তুলনায় ১২ শতাংশ কম পরিমাণের খাবার খাবেন।

৭) স্যুপ
গবেষণায় দেখা গিয়েছে স্যুপ খেলে আপনার খিদে অনেক কমে যাবে। নিয়মিত স্যুপ খাওয়া ওজন কমাতেও সাহায্য করবে। তবে পরিষ্কার ঝোল ঝোল স্যুপ অনেক বেশি উপকারি, অন্য ধরনের স্যুপের থেকে।









Leave a reply