ওয়াসিম-ওয়াকারের পাশে দাঁড়ালেন বোল্ট-সাউদি

|

সেকি অগ্নিঝরা বোলিং দেখলো অকল্যান্ড টেস্ট! বোল্ট-সাউদির তোপের মুখে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৫৮ রানে অসহায় আত্মসমর্পণ করলো ইংল্যান্ড। বোল্ট ৬টি আর সাউদি ৪টি উইকেট নিয়েছেন। জুটি হিসেবে নাম লেখিয়েছেন ইতিহাসের এক অনন্য খাতায়। মাত্র দু’জন বোলার বোলিং করে প্রতিপক্ষকে অলআউট করার ঘটনা আধুনিক ক্রিকেটে মাত্র দু’বার ঘটেছে। আগের বার এমন কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন ওয়াসিম আকরাম-ওয়াকার ইউনিস জুটি।

১৯৯৪ সালে ক্যান্ডিতে নিজেদের মাঠে ওয়াসিম আকরাম-ওয়াকার ইউনিস জুটির তোপের মুখে পড়ে শ্রীলঙ্কা। দু’জনে ১৪ ওভার করে একটানা বল করে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৭১ রানে অলআউট করেছিলেন শ্রীলঙ্কাকে। সেবার ওয়াসিম ৪টি ও ওয়াকার ৬টি উইকেট নিয়েছিলেন। আরও এক জায়গায় মিল আছে এ দু’ ঘটনায়। দুক্ষেত্রেই একজন বা’হাতি, অপরজন ডানহাতি পেসার ছিলেন।

অবশ্য, গত ১০০ বছরের হিসেব করলে চতুর্থবারের মতো ঘটলো এ ঘটনা। ১৯৬৫ সালে করাচি টেস্টে পাকিস্তানের দুই কিংবদন্তী বোলার ফজল মাহমুদ ও খান মোহাম্মদ একটানা ২৭ ওভার করে বল করেন। ৮০ রানে অলআউট করে দেন অস্ট্রেলিয়াকে।

তার আগে, ১৯২৪ সালে ইংল্যান্ড সফরে গিয়ে নাকাল হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। দুই ইংলিশ ডানহাতি মিডিয়াম পেসার আর্থার গিলিগান ও মরিস টেইট মিলে প্রথম ইনিংসে ৩০ রানে গুড়িয়ে দিয়েছিলেন প্রোটিয়াদের। ৬ উইকেট নিয়েছিলেন গিলিগান আর মরিস টেইটের শিকার ৪ উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে ঘুরে দাঁড়িয়ে ৩৯০ রান করলেও ইনিংস ও ১৮ রানের ব্যবধানে হারতে হয় তাদের।

অবশ্য, আদিকাল থেকে হিসেব করলে ইতিহাসে পাতায় ১৫ বার এমন ঘটনার নজির পাওয়া যায়।

যমুন অনলাইন: টিএফ









Leave a reply