গরুর মাংসের জেরে খুন: ১১ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

|

গত বছর এক মুসলিমকে গরু মাংস বহনের কারণে পিটিয়ে হত্যা করায় ১১ জনকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার ভারতের ঝাড়খণ্ড রাজ্যের একটি আদালত এই আদেশ দেন।

আইনজীবি সুশীল কুমার শুক্লা ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, “সর্বোচ্চ সাজার জন্য আমরা আদালতে আর্জি জানিয়েছিলাম। দ্বাদশ ব্যক্তিকে আদালত অভিযুক্ত করেনি, কেননা তার ব্য়স ১৬ থেকে ১৮ বছরের মধ্যে।”

আনসারির ছেলে শাবান আনসারি বলেন, “আমরা এই রায়ে সন্তুষ্ট। কিন্তু রাজ্য সরকার থেকে ক্ষতিপূরণ পাওয়ার বিষয়ে কোনো আদেশ দেওয়া হয়নি, এটি হতাশাজনক।”

আদালতের বাইরে আনসারির স্ত্রী মরিয়ম খাতুন সাংবাদিকদের বলেন, তার স্বামীর মৃত্যুতে অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। কিন্তু তিনি আরও রক্তপাত চান না। পরিবার ও সমাজের সাথে তিনি শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করতে চান।

৫৫ বছর বয়সী আলিমুদ্দিন আনসারিকে গরুর মাংস সঙ্গে করে নিয়ে যাওয়ার সময় পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছিল।

ভারত জুড়ে হিন্দুরা গরুকে পবিত্র জ্ঞানে পুজা করে থাকে। ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ২০১৪ সালে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার গঠনের পর থেকে ‘গো-মাতা’ রক্ষা আন্দোলনের ফলে দেশব্যাপী বেশ কিছু সহিংস ঘটনা ঘটে।

কিন্তু বেশির ভাগই ক্ষেত্রেই পুলিশ দোষীদের ছেড়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এই প্রথম দেশটির আদালত এই বিষয়ে কোনো রায় দিলো।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ হিসাব অনুসারে, গত বছর এ ধরনের ৩৮টি ঘটনা ঘটেছে, এবং এতে ১০ জন মানুষ নিহত হয়েছেন।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply