অজু করতে গিয়ে মোবাইল পানিতে পড়লে সার্ভিসিং ‘ফ্রি’

|


স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, টাঙ্গাইল:

নামাজ পড়তে গিয়ে অজু করার সময় হাত বা পকেট থেকে মোবাইল ফোন পানিতে পড়ে গিয়ে নষ্ট হলে সার্ভিসিং ফ্রি। ঠিক এমনই এক সাইনবোর্ড ঝুলানো হয়েছে ভুঞাপুর উপজেলার বিভিন্ন মসজিদ ও দোকানের সামনে। এমন সাইনবোর্ড পথচারীসহ সকল মানুষের দৃষ্টি আকৃষ্ট করছে।

এ উদ্যোগের মাধ্যমে নজির স্থাপন করেছেন ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী বাজারের আব্দুর রহমান টেলিকম এন্ড মোবাইল সার্ভিসিং সেন্টারের পরিচালক মেকানিক সোহেল।

তার এমন উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সোহেল রানা জানান, আল্লাহ তায়ালা আমাকে একটা পুত্র সন্তান দান করেছেন। আমার একান্ত ইচ্ছা তাকে ধর্মীয় শিক্ষায় শিক্ষিত করা। তাই আগে থেকেই যারা নামাজী তাদেরকে সেবা করছি এবং জনকল্যাণমূলক কাজ করার চেষ্টা করছি। সেই স্বপ্ন প্রতিফলনের মাধ্যম হিসেবে এমনই উদ্যোগ নিয়েছি। এমন উদ্যোগে আমি মানুষের কাছ থেকে বেশ উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা পাচ্ছি। 

তিনি আরও বলেন, প্রতিদিন এমনিতেই কাজকর্ম ভালো থাকে। তবে অজু করতে গিয়ে নষ্ট হওয়া মোবাইল বিনা পয়সায় মেরামত করার পর থেকে কাজকর্ম অনেক বেড়ে গেছে। আর আমার কাজটা হবে নামাজ পড়তে যাওয়া মানুষদের জন্য। বিনা পয়সায় কাজটা করে দিলে তারা আমার জন্য দোয়া কবরেন। এছাড়া আমার এমন উদ্যোগ দেখে অন্যরাও এমন মহৎ কাজে উৎসাহিত হবে।

নষ্ট হওয়া মোবাইল বিনা পয়সায় মেরামত করে হাতে পাওয়ার পর মো. হাসমত আলী নামে এক মুসল্লি বলেন, গত কয়েক দিন আগে আসরের নামাজের সময় অজু করতে গিয়ে আমার মোবাইলটা পকেট থেকে পানিতে পড়ে যায়। টাকার অভাবে মেরামত করতে পারছিলাম না। হঠাৎ এক লোক বললেন, গোবিন্দাসী বাজারের আব্দুর রহমান টেলিকম এন্ড মোবাইল সার্ভিসিং সেন্টারের পরিচালক সোহেল রহমান নামাজ পড়া মুসল্লিদের অজু করতে গিয়ে মোবাইল নষ্ট হলে সেই মোবাইল বিনা পয়সায় মেরামত করে দেন। প্রথমে আমার বিশ্বাস হচ্ছিল না। পরে সেখানে গেলে আমার নষ্ট মোবাইলটা বিনা পয়সায় তিনি মেরামত করে দেন। আমি নামাজ পড়ে দোয়া করবো যেন, আল্লাহ তায়ালা সোহেল ভাইয়ের মঙ্গল করেন।

গোবিন্দাসী বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মো. ছরোয়ার হোসেন আকন্দ বলেন, সোহেল রহমান মুসল্লিদের জন্য যে উদ্যোগ নিয়েছে তা নিঃসন্দেহে একটি ভালো উদ্যোগ। আমি এই প্রথম শুনলাম যে, নামাজ পড়তে গিয়ে অজু করার সময় মোবাইল ফোন পানিতে পড়ে গিয়ে নষ্ট হলে বিনা পয়সায় সার্ভিসিং করে দেয়। এমন একটা ভালো উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য বাজার সমিতির পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই এবং আমি তার উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করছি।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply