সুপার টুয়েলভে খেলাই বড় প্রাপ্তি, অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগে হেরাথ

|

বাংলাদেশের স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথ। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচে কাল অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। সব হারানো টাইগাররা অন্তত একটা জয় নিয়ে ফিরতে চায় দেশে। যদিও সুপার টুয়েলভে খেলাকেই বড় প্রাপ্তি মনে করেন স্পিন কোচ রঙ্গনা হেরাথ৷ দুবাইতে ম্যাচটি শুরু হবে বিকেল চারটায়।

শামিম- শরিফুলদের জন্য বিশ্বকাপে এদিনই ছিল অনুশীলনের শেষ সুযোগ। স্মিথদের ব্যাটিং দেখাটাও হতে পারতো শেখার অংশ। কিংবা হোটেলে বায়োবাবলে বন্দি না থেকে সবুজ মাঠে মন খুলে কথা বলাটাও টনিক হতে পারতো গুমোট পরিবেশটা কাটাতে। রাসেল ডমিঙ্গোর শিষ্যরা সেই সুযোগ নেননি। তাই তো ২০১৪ বিশ্বকাপ জয়ী হেরাথের কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল, সাঙ্গাকারা- জয়াবর্ধনেদের সাথে কোথায় পার্থক্য এ দলের?

বাংলাদেশের স্পিন কোচ রঙ্গনা হেরাথ বলেন, আপনাকে বুঝতে হবে আপনি দেশের হয়ে খেলছেন। আপনাকে জানতে হবে আপনার দায়িত্ব কী, দল আপনার কাছে কী চায়। সে জায়গায় আরও অনেক দূর যেতে হবে।

টাইগারদের যে কাজ করার আছে অনেক কিছুই, সে বিশেষজ্ঞ না হয়েও সবাই জানে। শুধু ক্রিকেটার না, অপেশাদারিত্ব আছে পরতে পরতে। বলা হয় স্বপ্নটা হতে হয় আকাশ ছোঁয়া। বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলাটাকেই যারা বড় প্রাপ্তি ভাবে সেখানে টানা চার হার কি স্বাভাবিক না?

হেরাথ বলেন, প্রথমে দলকে ধন্যবাদ দেয়া উচিত, আমরা সুপার টুয়েলভে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছি। হ্যাঁ, এরপর ছেলেরা ভালো করতে পারেনি। তবে শেষ ম্যাচটা শতভাগ দিতে চাই আমরা। জয় নিয়ে ফেরাটাও অনেক বড় কিছু হবে।

ম্যাচটি অবশ্য অস্ট্রেলিয়ার জন্যও গুরুত্বপূর্ণ। ৪-১ ব্যবধানে টাইগারদের সাথে সিরিজ হারের দগদগে স্মৃতি তো থাকছেই সামনে। অজি অলরাউন্ডার অ্যাস্টন অ্যাগার বললেন, এটা নিশ্চিত মিরপুর আর এখানকার অবস্থা একেবারেই আলাদা। ওখানে খেলাটা খুব কঠিন ছিল। আর এখানে নতুন ম্যাচ; দুদলেরই তাই সম্ভবনা আছে। আমাদের জিততেই হবে। আর সেই উদ্দেশ্য নিয়েই মাঠে নামবো।

অজিদের মনোসংযোগে ব্যাঘাত ঘটিয়ে যদি ঘুরে দাঁড়াতে পারে টাইগাররা, যদি আসে জয়; তবে সব হারিয়েও উৎসব করবে হয়তো ভক্তরা।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply