বিয়ের পর ওজন বাড়ছে? জেনে নিন কারণ

|

বিয়ের পর ওজন বাড়ার সমস্যা খুবই সাধারণ। বাংলাদেশসহ বিশ্বের প্রায় সব দেশের নব-দম্পতিরাই এই সমস্যার সম্মুখীন হন। বিজ্ঞানের ভাষায় বিয়ের পর এই ওজন বৃদ্ধিকে বলা হয় ‘লাভ ওয়েট’। বিষয়টি অনেকেই মিম বা মজার ছলে নেন। তবে এর সত্যতা এবং ঠিক কী কী কারণে বিয়ের পর বাড়ে ‘লাভ ওয়েট’ সাম্প্রতিক এক গবেষণায় তা উঠে এসেছে।

বিষয়টি নিয়ে ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন গবেষক কাজ করেছেন। তাদের গবেষণা লব্ধ ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে রিসার্চ গেট জার্নালেও। সেখানে বিভিন্ন দেশের দুই হাজার জনের ওপর সমীক্ষা চালানো হয়েছে। দেখা গেছে, ৭৯ শতাংশের ক্ষেত্রেই বিয়ের পর ওজন বেড়েছে।

সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, বিয়ের পর নারীদের তুলনায় পুরুষদের ওজন বাড়ে বেশি। বিয়ের পর প্রায় ৬৯ শতাংশ পুরুষের ওজন ১০ কিলোগ্রামের উপর বেড়েছে বলে দেখা যায় এই গবেষণায়। অন্যদিকে, নারীদের মধ্যে ৪৫ শতাংশের ওজন বেড়েছে ১০ কিলোগ্রামের উপর। তবে এই ওজন বৃদ্ধির কারণ কী?

গবেষণা বলছে, বিয়ের সময়ে খাদ্যাভ্যাসে বদল আসে। নিত্য বাইরের খাবার খাওয়া হয়ে যায়। এটি ওজন বাড়ায়।

এছাড়া বিয়ের পর ঘুমও কমে যায়। নতুন পরিবেশে খাপ খাইয়ে নিতে সময়ও লাগে বেশ। বিয়ের আগে যাদের নিজেদের মধ্যে পরিচয় ছিল না, তাদের পরস্পরের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে আরও সময় লাগে। তাতেই কমে যায় ঘুম। ঘুমের অনিয়ম ওজন বাড়িয়ে দেয়।

আরও একটি কারণে ঘুম কমে। বিয়ের পরে নতুন বেশ কয়েকটি দায়িত্ব এসে পড়ে কাঁধে। এমনকি সংসার চানালোর জন্য উপার্জন নিয়েও চিন্তা বাড়ে। তাতেই ঘুম কমে। সেটিও ওজন বাড়িয়ে দেয়।

তবে এই কারণগুলোর চেয়েও গবেষকরা বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন অন্য একটি কারণকে। সমীক্ষা থেকে তাদের দাবি, বিয়ের আগে অনেকেই নিজের অনেক বেশি যত্ন নেন, স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখেন। ওজন নিয়ন্ত্রণর চেষ্টাও করেন। অন্য মানুষের চোখে আকর্ষণীয় হয়ে ওঠার একটা তাগিদ থাকে অনেকের মধ্যেই।

তবে সেই তাগিদ পুরোপুরি চলে না গেলেও, বিয়ের পরে বেশির ভাগের ক্ষেত্রেই তা কিছুটা কমে যায়। জীবনসঙ্গী পাওয়া হয়ে গেছে বলে, তারা নিজের চেহারার যত্ন নেয়া কমিয়ে দেন। কমিয়ে দেন ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টাও।

গবেষকরা বলছেন, মোটা দাগে এ সমস্যা সমাধানে বিশেষ কোনো পন্থা নেই। স্বাস্থ্যের প্রতি যত্নশীলই ‘লাভ ওয়েট’ রোধের প্রথম ও প্রধান উপায়। এ ক্ষেত্রে মানসিক ও শারীরিক দুই ক্ষেত্রেই সচেতন থাকতে হবে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply