ইনিংসের অর্ধেক শেষ, বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬০ বলে ৪০ রান

|

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে ব্যাট করছে বাংলাদেশ দল। ইতোমধ্য প্রোটিয়া পেসারদের গতিতে মুখ থুবড়ে পড়েছে বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপ। রাবাদার তাণ্ডবের পর, নর্টিয়ের ও প্রিটোরিয়াসের বলেই দিশেহারা বাংলাদেশ ১০ ওভার শেষে রান করেছে ৪০, অর্থাৎ ৬০ বলে ৪০ রান।

নতুন বলে ব্যাট করতে নেমে মহারাজের প্রথম ওভারে ৪ রান নেন দুই ওপেনার লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈম। ভালোই চলছিলো নাঈম ও লিটনের ব্যাট। কিন্তু চতুর্থ ওভারে শুরু হয় রাবাদার তাণ্ডব। টানা দুই বলে দুই উইকেট তুলে তৈরি করেন হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা।

রাবাদার দ্বিতীয় ওভারের পঞ্চম বলে নাঈম শট খেললেন মিডউইকেটের দিকে। টাইমিংয়ের অভাবে সেই শট ধরা পড়লো রিজা হেনড্রিকসের হাতে। এর পরের বলেই নতুন ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার এলবিডাব্লিউ হলেন। ওভারের শেষ বল সৌম্যর বুটে লাগলে আম্পায়ার আপিলে সাড়া দেননি। রিভিউ নেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। যেখানে দেখা যায়, বল সৌম্যর বুটে লেগে অফ স্ট্যাম্পে হিট করত। এতেই শূন্য রানেই বিদায় নেয় সৌম্য।

এরপর মাঝে এক ওভার সামাল দিলেও রাবাদার তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে মুশফিকুর রহিম ঠেকিয়ে হ্যাটট্রিকবঞ্চিত করেন প্রোটিয়া পেসারকে। কিন্তু ঠিকই নিজের তৃতীয় শিকার বানিয়ে ফেলেন মুশফিককে। ওভারের তৃতীয় বলে এক্সট্রা বাউন্সের বলে শট নেন মুশফিক। আর গালিতে দাঁড়ানো রিজা হেনড্রিকস দুর্দান্তভাবে লুফে নেন সেই সুযোগ। যদিও বল মাঠিতে স্পর্শ করেছে কিনা সেই সন্দেহে জাগে আম্পায়ারদের, তাই রিভিউ করেন তারা। শেষমেশ আউটের সিদ্ধান্তই জানায় আম্পায়াররা।

২৪ রানে ৩ উইকেট হারিয়েও ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি বাংলাদেশ। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহও দায়িত্ব নিয়ে ব্যাট করতে পারলেন না। ইনিংসের অষ্টম ওভারের শেষ বলে আনরিখ নর্টিয়ের শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান মাত্র ৩ রানে। এরপর আফিফও মিউ-উইকেটে ব্যাট চালাতে গিয়ে বোল্ড হন প্রিটোরিয়াসের বলে। ক্রিজে দাত চেপে টিকে থাকা ওপেনার লিটনও দাসও ফিরে গেছেন এলবিডাব্লিউ’র ফাঁদে পড়ে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: ১১ ওভারে ৪৫/৬ (মেহেদী ০*, শামীম ৪*)


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply