বালুবাহী নৌকার সাথে স্পিডবোটের সংঘর্ষ, চালকসহ নিহত ৩

|

ছবি: সংগৃহীত।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে মেঘনা নদীতে বালুবাহী নৌকার সাথে যাত্রীবাহী স্পিডবোটের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিন যাত্রী। শনিবার (৩০ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার মরিচাকান্দি লঞ্চঘাটের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো- উপজেলার মরিচাকান্দি গ্রামের অধিবাসী স্পিডবোট চালক রুবেল মিয়া, হোসেনপুর গ্রামের পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক মাহবুবুর রহমান জুয়েল এবং নরসিংদী সদর উপজেলার সঙ্গীতা এলাকার ফরিদ মিয়া। এর মধ্যে নিখোঁজের ১৮ ঘণ্টা পর স্পিডবোট চালকের মরদেহ উদ্ধার করেছে নৌপুলিশ।

পুলিশ জানায়, শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে নরসিংদী থেকে ১২ জন যাত্রী নিয়ে একটি স্পিডবোট বাঞ্ছারামপুরের মরিচাকান্দির উদ্দেশে রওয়ানা হয়। রাত ৮টার দিকে মরিচাকান্দি লঞ্চঘাটের সামনে মেঘনা নদীতে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি বালুবাহী নৌকার সাথে স্পিডবোটটির সংঘর্ষ হয়।

এ সময় এলাকাবাসী নদী থেকে ১১ জনকে উদ্ধার করে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় মাহবুবুর রহমানকে ঢাকা নেয়ার পথে তিনি মারা যান। আর ফরিদ মিয়াকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনার পর থেকে স্পিডবোট চালক রুবেল নিখোঁজ ছিলেন। গভীর রাত পর্যন্ত উদ্ধারকাজ পরিচালনা করেও রুবেলের খোঁজ পাওয়া যায়নি। রোববার দুপুরে রুবেলের মরদেহ ঘাট এলাকা থেকেই উদ্ধার করে নৌপুলিশ।

তবে পুলিশ জানায়, ঘটনার পর পালিয়ে যায় বালুবাহী নৌকাটি। সেটি চিহ্নিত করার প্রক্রিয়া চলছে। রুবেলের মরদেহ হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানানো হয়।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply