কিশোরীর চাচাতো ভাইয়ের সহায়তায় ধর্ষণের অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে

|

পাবনা প্রতিনিধি:

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলিম (৩০), দুলু (২৮) ও কিশোরীর চাচাতো ভাই রানার (২৮) বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

শনিবার (৩০ অক্টোবর) রাতে ওই কিশোরীর পিতা ভাঙ্গুড়া থানায় এই মামলা দায়ের করেন। অভিযুক্ত আলিম ভাঙ্গুড়া পৌরশহরের এক নম্বর ওয়ার্ডের মাস্টার পাড়া মহল্লার আব্দুল জলিলের ছেলে, দুলু সদর ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের মৃত খুরজান মণ্ডলের ছেলে ও রানা চাটমোহর রেলবাজার এলাকার বাসিন্দা।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৮ অক্টোবর চাটমোহর রেলবাজার এলাকার বাসিন্দা ওই কিশোরীর চাচাতো ভাই রানার সঙ্গে ভাঙ্গুড়া বাজারে বেড়াতে আসে। ওইদিন পূর্ব পরিচিত আব্দুল আলিমের সঙ্গে রানার দেখা হয়। পরে আব্দুল আলিম তাদেরকে শহরের শরৎনগর বাজারের নিজস্ব অফিসে নিয়ে যায়। সেখানে কিশোরীর চাচাতো ভাই রানাকে ম্যানেজ করে আব্দুল আলিম ও দুলু ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে।

এ ঘটনায় কিশোরীর পক্ষ থেকে সালিশ করে মীমাংসার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু মীমাংসা না হওয়ায় কিশোরীর পিতা মামলা করে।

তবে অভিযুক্ত আব্দুল আলিম ধর্ষণের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, সম্প্রতি আমি ভাঙ্গুড়া বড়াল ব্রীজ স্টেশন থেকে একটি চোর চক্রকে বিতাড়িত করি। সেই চক্রটি তাদের এক মেয়েকে দিয়ে আমাকে ফাঁসানোর জন্য এই মামলা করিয়েছে।

মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে ভাঙ্গুড়া থানার ওসি ফয়সাল বিন আহসান বলেন, মামলার ভিকটিম কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষা ও জবানবন্দির জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে। এরপর আদালতের সিদ্ধান্ত মোতাবেক আইনগত ব্যবস্থা
নেওয়া হবে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply