বিশ্বকাপে গতির ঝড় তাসকিনের

|

স্পিডস্টার তাসকিন আহমেদ। ছবি: সংগৃহীত

নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ধারাবাহিক গতির ঝড় তুলে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নজর কেড়েছেন পেসার তাসকিন আহমেদ। ঘণ্টায় ১৫২ কিলোমিটার বা ৯৫ মাইল গতিতে বল করে সবার উপরে প্রোটিয়া পেসার আইনরিখ নকিয়া। হারিস রউফ-শাহিন আফ্রিদি-দুশমন্ত চামিরার পর ঘণ্টায় ১৪৯ কিলোমিটার বা ৯৩.১২ মাইল বেগে বল করে নজর কেড়েছেন বাংলাদেশি স্পিডস্টার তাসকিন আহমেদ।

জোয়েল গার্নার, ডেনিস লিলি, ব্রেট লি কিংবা শোয়েব আখতার প্রতিপক্ষ শিবিরে কাঁপন ধরিয়ে দিতেন গতি ও বাউন্সে। লড়াই জমে উঠতো প্রতিপক্ষ টপ অর্ডারের সাথে। নতুন বলের চকচকে সৌন্দর্য কাঁপন ধরাতো বাঘা বাঘা ব্যাটারদের। আর তাতেই ম্যাচের মোমেন্টাম পেয়ে যেত বোলিং দল। আগ্রাসী পেস বোলিং যেমন কার্যকর তেমনি ক্রিকেটের সৌন্দর্যও বটে। আর সেই সব স্পিডস্টাররা হয়ে থাকতো অধিনায়কের তুরুপের তাস।

একজন স্পিডস্টারের খোঁজে ২০০৬ সাল থেকেই পেসার হান্ট প্রোগ্রাম থেকে শুরু করে নানা কার্যক্রম হাতে নেয় বিসিবি। যার ফল রুবেল-এবাদতরা। তবে বয়সভিত্তিক দল থেকে উঠে আসা তাসকিন নিজেকে বার বার ভেঙেছেন ও গড়েছেন। এখন অনেক পরিণত তাসকিন; গতির ঝড় তুলছেন নিয়মিত। সাথে আছে বলের উপর নিয়ন্ত্রণ। সব শেষ উইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচে ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে শুধু দলই নয়, ম্যাচে সবচেয়ে ইকোনমিক বোলার ছিলেন তিনি।

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে তাসকিন ১৪৯ কিমি গতিতে ঝড় তুলেছিলেন। উইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচে তাসকিন ১৪০ কিমি গতির নিচে বল করেছেন মাত্র একটি। গতির সাথে নিয়ন্ত্রণে গুছিয়ে ওঠা তাসকিন প্রতিপক্ষের জন্য হয়ে উঠতে পারেন আরও ভয়ংকর।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply