মাঝিরঘাটে টোল আদায়ের নামে বছরের পর বছর ধরে চাঁদাবাজি

|

নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা উপেক্ষা করে শরীয়তপুরের মঙ্গলমাঝি-ছাত্তার মাদবর লঞ্চঘাটে যাত্রীদের কাছ থেকে আদায় করা হচ্ছে টোল। খেয়াঘাটের নামে লঞ্চযাত্রীদের কাছ থেকে টোলের নামে চাঁদাবাজি করছে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল। দিনের পর দিন যাত্রী ভোগান্তি হলেও প্রতিকারে নীরব প্রশাসন।

অবৈধ এই চাঁদা প্রতিদিন ১০ টাকা করে নিলেও উৎসব আয়োজনে বেড়ে যায় দ্বিগুণ। টাকা না দিলে সইতে হচ্ছে অপমান আর লাঞ্ছনা। এভাবে প্রতিদিনই ভোগান্তির শিকার হতে হয় রাজধানীমুখী যাত্রীদের। তবে চাঁদা আদায়কারীরা বলছেন, তারা নাকি নিয়ম মেনেই টোল তুলছেন। আর শরীয়তপুর বিআইডব্লিউটিএর টিআই আব্দুলাহ ইনাম বলছেন, লঞ্চযাত্রীদের কাছ থেকে টোলের নামে অর্থ আদায় নিয়ম বর্হিভূত।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে দেশের সকল লঞ্চঘাটের ইজারা প্রথা বাতিল করে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়। সাত বছর পেরিয়ে গেলেও সেই নির্দেশনা উপেক্ষিত এই লঞ্চঘাটে। কিন্তু বছরের পর বছর এমন চাঁদাবাজি চললেও প্রশাস নির্বিকার।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply