প্রিয় তারকার মৃত্যুর খবরে ভক্তের আত্মহত্যা

|

ভারতের কন্নড় সিনেমার সুপারস্টার পুণীত রাজকুমার মারা গেছেন। শুক্রবার (২৯ অক্টোবর) মারা যান তিনি। তার মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ ভারতের দক্ষিণাঞ্চল। তারকা থেকে শুরু করে অগণিত দর্শক শোকাহত।

ইন্ডিয়া ডট কমের প্রতিবেদনে জানা যায়, কর্ণাটক জুড়ে ছড়িয়ে থাকা পুনিতের ভক্তরা মানসিকভাবে একেবারে ভেঙে পড়েছে। প্রিয় তারকার মৃত্যুর খবর শুনে এক ভক্ত আত্মহত্যা পর্যন্ত করে ফেলেছে। এছাড়া আরও একজন আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। শুধু তাই নয়, পুণীতের মৃত্যুর খবর সহ্য করতে না পেরে হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন আরও ২ জন।

হার্ট অ্যাটাকে মারা যাওয়া প্রথম ভক্তের নাম মুনিয়াপ্পা। তিনি কর্ণাটকের মারুরু গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। পুণীতের মৃত্যুর খবর শুনেই বুকের ব্যথায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। এরপর তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। একইভাবে মারা গেছেন বেলগাঁও এলাকার আরেক ভক্ত। যার নাম পরশুরাম। টেলিভিশনে পুণীতের মৃত্যুর খবর পেয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি।  

আত্মহত্যাকারী ভক্তের নাম রাহুল। পুণীতের মারা যাওয়ার খবর শুনে তিনি নিজের ঘরে অভিনেতার ছবি ফুল দিয়ে সাজিয়ে সম্মান জানান। এরপর গলায় ফাঁস দেন।

এসব ভক্ত ছাড়া আরও অনেকে পুণীতের জন্য নিজেকে আঘাত করে জখম করেছেন বলে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলোর দাবি। পুণীত সাধারণ দর্শকদের মাঝে অত্যধিক জনপ্রিয় ছিলেন। এ কারণে তার মৃত্যু কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছে না ভক্তরা।

প্রসঙ্গত, পুণীত শুধু রূপালী পর্দাতেই নন, বরং জীবন নামের আরও বড় এক পর্দায় দৃষ্টান্ত রেখে যাওয়া এক নায়ক ছিলেন।

পুণীতের বাবাও কাজ করেছেন সমাজের জন্য। নিজেও ধরে রেখেছিলেন সেই ধারা। সেইসাথে নিজে প্রতিষ্ঠা করেন ৪৫টি দাতব্য স্কুল, ২৬টি অনাথ আশ্রম, ১৬টি বৃদ্ধাশ্রম এবং ১৯টি গরুর খামার! কেবল নিজের অর্থায়নেই তিনি বহন করে চলছিলেন ১৮০০ শিক্ষার্থীর লেখাপড়ার দায়িত্ব।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply